মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ আগস্ট ২০১৭, ৯ ভাদ্র ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বরফযুগের সিংহের ক্লোন!

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৬

ক্লোনিংয়ের মাধ্যমে কোন প্রাণীর আদলে হুবহু আরেকটি প্রাণী তৈরি করা নতুন ঘটনা নয়। কিন্তু তাই বলে সিংহের ক্লোন? তাও আবার বরফযুগের সিংহ, যা কি না পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হয়ে গেছে হাজার বছর আগে।

আশ্চর্যজনক এই কাজের পরিকল্পনা করেছেন রুশ বিজ্ঞানীরা। খবরে বলা হয়েছে, রাশিয়ার পূর্ব সাইবেরিয়ার বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি দুটি সিংহের বাচ্চার মৃতদেহ খুঁজে পেয়েছেন। ঠা-ায় জমে যাওয়ার কারণে মৃতদেহ দুটি প্রায় অক্ষত অবস্থাতেই রয়েছে। আর এই দেহগুলো থেকে সংগৃহীত ডিএনএ দিয়েই সিংহের ক্লোন নির্মাণের পরিকল্পনা করেছেন সে দেশের বিজ্ঞানীরা।

নর্থ ইস্ট রাশিয়া ইউনিভার্সিটির এই গবেষক দলের প্রধান ড. প্রেতোপপোভ বলেন, ‘সিংহের ছানা দুটির বয়স খুব বেশি হলে দুই সপ্তাহ হবে। খুব সম্ভবত তাদের মা তাদের অন্য সিংহের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ওই গুহায় লুকিয়ে রেখেছিল।’ ছানা দুটির একটিকে ক্লোন তৈরির কাজে ব্যবহার করা হবে, অন্যটিকে কোন জাদুঘরে রাখা হবে।

এক সময় যুক্তরাজ্য থেকে শুরু করে গোটা ইউরোপ ও রাশিয়ায় সিংহের বিচরণ ছিল। আনুমানিক ১০ হাজার বছর আগে তারা বিলুপ্ত হয়ে যায়। খুব সম্ভবত সে সময়ে পৃথিবীতে বরফযুগ শুরু হওয়ার কারণে উত্তর গোলার্ধ ক্রমে ঠা-া হয়ে যেতে থাকে। এর ফলে সিংহের শিকার, হরিণ ও অন্যান্য বন্য প্রাণী হয় মারা যায় অথবা দক্ষিণের উষ্ণ অঞ্চলগুলোতে চলে যায়। ফলে খাদ্যাভাবে বিলুপ্তি ঘটে বরফযুগের এসব সিংহের। ওয়েবসাইট অবলম্বনে।

প্রকাশিত : ২৩ মার্চ ২০১৬

২৩/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ:
ঘূর্ণিঝড়, পাহাড় ধস, বন্যা ॥ দুর্যোগ পিছু ছাড়ছে না || বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের শিকার পরিবারগুলোকে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান || বিটি প্রযুক্তির ব্যবহার দেশকে কৃষিতে ব্যাপক সাফল্য এনে দিয়েছে || রিজার্ভের চুরি যাওয়া অর্থ পুরো ফেরত পাওয়া যাবে || গ্রেনেড হামলা মামলার পলাতক ১৮ আসামিকে ফেরত আনার চেষ্টা || অনেক সড়ক মহাসড়ক পানির নিচে মহাদুর্ভোগের শঙ্কা || খাদ্য প্রক্রিয়াজাত শিল্পে ’২১ সালের মধ্যে বিলিয়ন ডলার রফতানি || নূর হোসেনের দম্ভোক্তি উবে গেছে, কালো মেঘে ছেয়েছে মুখ || জবাবদিহিতা না থাকা ও রাজনৈতিক প্রভাবে পাউবো প্রকল্পে দুর্নীতি || রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে আজ চূড়ান্ত রিপোর্ট দিচ্ছে আনান কমিশন ||