২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ সড়ক দুর্ঘটনায় চট্টগ্রামে শ্রমিক, গাইবান্ধায় ছাত্রী ও ঠাকুরগাঁওয়ে ভ্যানচালক নিহত হয়েছেন। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের পাঠানো-

চট্টগ্রাম ॥ নগরীর ইপিজেড থানার বিমানবন্দর সড়কে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন টমটমের এক যাত্রী। তার নাম মোঃ মহিউদ্দিন (১৮)। মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে রুবি সিমেন্ট কারখানার সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ইপিজেড থানা সূত্রে জানা যায়, দ্রুতগতির একটি মাইক্রোবাস রুমি সিমেন্ট কারখানার সামনে টমটমকে ধাক্কা দিলে চাপা পড়েন যাত্রী মহিউদ্দিন। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে দ্রুত নৌবাহিনী হাসপাতালে নিয়ে যায়।

গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার মীরপুর বাজার এলাকায় সোমবার সন্ধ্যায় একটি ট্রাক্টরের ধাক্কায় জাকির হোসেন (৩৪) নামে এক বাইসাইকেল আরোহীর গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তিনি মারা যান। নিহত জাকির হোসেন ফরিদপুর ইউনিয়নের সাবেক তাজপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে।

ঠাকুরগাঁও ॥ রাণীংশকৈল উপজেলায় ট্রাকের ধাক্কায় আব্দুর রহিম (৩০) নামে এক ভ্যানচালক নিহত হয়েছেন। সোমবার রাত ১০টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আব্দুর রহিম রাণীংশকৈল ভানোর কলমদা এলাকার আবেদ আলীর ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাণীংশকৈল নেকমরদ-বালিয়াডাঙ্গী মহাসড়কে দ্রুতগামী ট্রাক একটি ভ্যানকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে ভ্যানচালক আব্দুর রহিম মারা যান। স্থানীয় লোকজন পরে আব্দুর রহিমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয়।

হোল্ডিং ট্যাক্স আদায়ে চসিক মেয়রের জিরো টলারেন্স

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সিটি কর্পোরেশনের আয়ের মূল উৎস হোল্ডিং ট্যাক্স। কিন্তু এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজশে সেই কর যথাযথভাবে আদায় হয় না। নানা অনিয়মে আয় কমেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক)। দীর্ঘ সময়ের অব্যবস্থাপনায় ৩৫০ কোটি টাকার দেনা নিয়ে চলতে হচ্ছে এই সংস্থাকে। সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে হোল্ডিং ট্যাক্স আদায়ে জিরো টলারেন্স দেখানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের পদক্ষেপও নেয়া হচ্ছে বলে জানা যায় চসিক সূত্রে। চসিকের সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্রে জানা যায়, মেয়রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নগরীর কর আদায়যোগ্য সকল স্থাপনাকে কর পুনর্মূল্যায়নের আওতায় নিয়ে আসা হবে।