২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

সেরা দল শেখ রাসেল ও চট্টগ্রাম আবাহনী!


রুমেল খান ॥ সবার আগে শেখ রাসেল আর রহমতগঞ্জ। আর শেষদিনে ও সবার শেষে বাকি নয় দল। প্রেক্ষাপট হচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলের দলবদল। রবিবার ছিল স্থানীয় ফুটবলারদের জন্য দলবদলের শেষ তারিখ। আগেরদিনে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র যেভাবে ব্যান্ডপার্টি ও ঘোড়ার গাড়ি নিয়ে মহাসমারোহে দলবদল করেছিল, দলবদলের শেষ দিনে তেমন কোন জাঁকজমক দেখায়নি বাকি ক্লাবগুলো। বরং নিরপত্তাই ছিল শেষদিনের দলবদল।

যদিও আগেরদিন কিছুটা উত্তাপ ছড়িয়েছিল শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাবের জন্য। নির্দিষ্ট ৯ ফুটবলার তাদেরই খেলোয়াড়, এ বিষয়ে বাফুফের দেয়া আগের নেতিবাচক সিদ্ধান্ত না পাল্টালে তারা অংশ নেবে না দলবদল প্রক্রিয়ায়। তবে শেষ পর্যন্ত ওই পথে হাঁটেনি শেখ জামাল। অংশ নেয় দলবদলে। তাদের দাবিকৃত ওই ৯ ফুটবলার ছাড়াই খেলোয়াড় নিবন্ধন কার্যক্রম সারে। তবে মামুনুল, নাসির, জামাল, রাজু, ইয়াসিন, ইয়ামিন, রনি, রানা, রায়হানদের এত সহজেই ছাড়ছে না শেখ জামাল। অচিরেই তাদের বিরুদ্ধে মামলার হুমকি দিয়েছে ক্লাবটি।

দলবদল প্রসঙ্গে শেখ জামাল জানিয়েছে ফুটবলের স্বার্থেই তারা এগিয়ে এসেছে। শেখ জামাল দলবদলে অংশ নেয়াতে আপাতত আগামী ৩০ মার্চ ‘স্বাধীনতা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট’ শুরু হতে আর কোন সমস্যা নেই।

জামালের খেলোয়াড় তালিকায় আছেন গোলরক্ষক মাজহারুল ইসলাম হিমেল, মাকসুদুর রহমান মোস্তাক। লেফট ব্যাকে আশরাফুল করিম, বাপ্পী হাসান মুরাদ; রাইট ব্যাকে মোহাম্মদ লিংকন, আনিসুর রহমান সুইট, ইয়াসিন খান; সেন্টার ব্যাকে জাহিদ পারভেজ চৌধুরী, দিদারুল হক, কেষ্ট কুমার বোস; স্টপার ব্যাকে রিদওয়ান বিন রহমান রাকিন, মিডফিল্ডে এনামুল হক শরীফ, মোহাম্মদ রকি, এ্যাটাকিং মিডফিল্ডে নুর রহমান জোসেফ, ল্যান্ডিং ডার্বোয়ে; স্ট্রাইকিংয়ে এনামুল হক, ওয়েডসন এ্যানসেলমে, এমেকা ডার্লিংটন অনুহা। এছাড়া পজিশন দেখানো হয়নি (তালিকায়) এমন তিন খেলোয়াড় হলেনÑ শিহাব, সুজন ও রাকিব। দলটির রক্ষণভাগ ও মধ্যমাঠে আগের মতোই দুর্বলতা রয়েই গেছে। গত মৌসুমে যে চট্টগ্রাম আবাহনী কোনমতে রেলিগেশন এড়িয়েছিল, এবার তারাই ১২ কোটি টাকার দল গড়ে চ্যাম্পিয়ন হবার স্বপ্ন দেখছে! শেখ জামাল থেকে তারা ছিনিয়ে এনেছে মামুনুল, নাসির, রায়হান, ইয়ামিন, তকলিস, রানা, রুবেলকে। এছাড়াও শেখ রাসেলের জাহিদ, রেজাউল; ঢাকা আবাহনীর শাকিল; মোহামেডানের আশরাফ রানা, ইব্রাহিম, বিপ্লব, ফয়সাল ও মানিককে ভিড়িয়েছে তারা। মরক্কোর তারিক আল জানাবি, হাইতির ফ্যাব্রিস নোয়েল, হল্যান্ডের জোয়েল ওমারি ক্যাম্পে থাকলেও আপাতত প্রথমজনকে সাইন করানো হয়েছে। লড়াকু দল গড়েছে টিম বিজেএমসিও।

জাতীয় দলের তপু বর্মণ, ওয়ালী ফয়সাল, হেমন্ত ভিনসেন্ট, জুয়েল রানা ও জীবন, মুক্তিযোদ্ধার ফয়সাল মাহমুদ ও টিটুকে নিয়েছে ঢাকা আবাহনী। প্রাণতোষ, শাকিল, আরিফ, মামুন, ওয়াহেদ, ফাহাদ, শাহেদ, বাদশাকে ছাড়েনি তারা। সানডে ও লি টাককে রাখা নিশ্চিত করেও নিবন্ধন করায়নি এখনও। দলবদল পুরোপুরি শেষ হয়নি এখনও। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বিদেশী ফুটবলারকে নিবন্ধন করানোর লড়াইয়ে এখন ব্যস্ত দলগুলো। দেখা যাক, তখন কোন্ দল কেমন মানসম্পন্ন বিদেশী ফুটবলার নিজেদের তাঁবুতে ভেড়াতে পারে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: