মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

মৎস্য কর্মকর্তার মৃত্যুতে ৩৫ যুবকের মাথায় হাত

প্রকাশিত : ২০ মার্চ ২০১৬, ১১:২৭ পি. এম.
  • চাকরি দেয়ার শর্তে কোটি টাকা আদায়

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ মৎস্য অধিদফতরের প্রকল্পে চাকরির আশায় অন্তত ৩৫ যুবক ধার দেনা করে ও পরিবারের গচ্ছিত অর্থ তুলে দিয়েছে রাজশাহীর এক শীর্ষ কর্মকর্তার হাতে। চাকরির আশায় অন্তত কোটি টাকা তুলে দিয়েছে মৎস্য অধিদফতরের উপপরিচালক মাহাবুবুল আলমের হাতে। সেই টাকা তুলে দিয়ে চাকরির আশায় বুক বেঁধে ছিল তারা। তবে সবকিছু শেষ হয়ে গেছে তাদের। হঠাৎ মৎস্য অধিদফতরের উপপরিচালক মাহাবুবুল আলমের মৃত্যুতে এখন দিশেহারা ৩৫ যুবক। চাকরি তো দূরের কথা এখন চাকরির নামে দেয়া কোটি টাকা নিয়ে সংশয়ে পড়েছে তারা। কর্মকর্তার মৃত্যুর পর সবাই ছুটে আসে তার লাশের কাছে। সেখানে ছোটখাট হট্টগোলও হয়। লাশ নিতেও বাধা দেয়া হয়। পরে মৎস্য অধিদফতরের উর্ধতন কর্মকর্তারা এসে তাদের নিয়ন্ত্রণ করে। গত শুক্রবার হঠাৎ ‘হার্ট এ্যাটাকে’ ওই কর্মকর্তার মৃত্যুর পর যুবকরা এখন চোখে সর্ষের ফুল দেখছে। চাকরি প্রার্থীরা জানান, মাহাবুবুল আলম ছিলেন রাজশাহী মৎস্য অধিদফতরের উপপরিচালক। একইসঙ্গে তিনি রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের (রাকাব) পরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছিলেন। মৎস্য অধিদফতরের প্রকল্পে লোক নিয়োগের কথা বলে টাকা নিয়েছিলেন অন্তত ৩৫ যুবকের কাজ থেকে। এরা সবাই রাজশাহী নওগাঁ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাসিন্দা। ব্যাংকের হিসেবে এদের কাছ থেকে সর্বোচ্চ সাত লাখ টাকা পর্যন্ত আদায় করেছিলেন ওই কর্মকর্তা। তারা চাকরির জন্য টাকা দিয়েছিল উপপরিচালক মাহাবুবুল আলমের হাতে। এর প্রমাণপত্রসহ তারা হাজির হয় জানাজার সময়। তারা সবাই চাকরির নিশ্চয়তা চায়। তবে সংশ্লিষ্ট দফতরের কর্মকর্তারা এ বিষয়ে তাদের কোন নিশ্চয়তা দিতে পারেননি। এতে তারা আরও হতাশ হয়ে পড়ে।

প্রকাশিত : ২০ মার্চ ২০১৬, ১১:২৭ পি. এম.

২১/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: