মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

পাবনায় সংঘর্ষে নিহত ১ গুলিবিদ্ধ ৭, ভোলায় কুপিয়ে কব্জি বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৬
  • ইউপি নির্বাচনপূর্ব সহিংসতা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ আর মাত্র একদিন বাদেই দেশের বিভিন্ন স্থানে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের প্রথম পর্ব শুরু হচ্ছে। সেই সঙ্গে জমে ওঠা প্রচারে সারাদেশে নির্বাচনী সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনা ছাড়াও হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনাও দেদার ঘটে চলেছে। পাবনায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত এবং বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে ১ জন নিহত ও ৭ গুলিবিদ্ধসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। ভোলার লালমোহনে মেম্বার প্রার্থীর হাতের কব্জি কুপিয়ে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা। এছাড়া বসতঘরে অগ্নিসংযোগ এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানেও হামলা চালানো হয়েছে।

নরসিংদীতে মেম্বার প্রার্থীর উঠোন বৈঠকে প্রতিপক্ষের সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে। এ সময় তারা গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় এবং ৩০টি বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট করে।

বাউফলে প্রতিপক্ষের লোকজন নৌকা মার্কার সমর্থকের ১০টি ঘর ভাংচুর করে। লক্ষ্মীপুরে রামগতিতে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর করা হয়। ঝালকাটির নলছিটি ভৈরবপাশায় পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে আওয়ামী লীগ অফিস। শনিবার মধ্যরাতে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটায়। পোস্টারিংয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে নাটোরের লালপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। নওগাঁর পতœীতলায় নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সন্ত্রাসীরা। এছাড়া ধামইরহাটে নির্বাচনী প্রচারে বিতরণ করা হচ্ছে নগদ টাকা। এ ঘটনায় নির্বাচনী পোস্টার ও মোটরসাইকেল আটক করা হয়েছে। বরগুনার পাথরঘাটায় দেশীয় অস্ত্রসহ ৭ জনকে আটক করা হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার, নিজস্ব সংবাদ দাতা ও সংবাদদাতার।

জানা গেছে, পাবনার বেড়া উপজেলার ঢালারচর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর সমর্থক ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে একজন নিহত এবং ৭ জন গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢালারচর ইউনিয়নের মিরপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তি ঢালারচর ইউনিয়নের খয়েরবাগান গ্রামের পাশান ম-লের ছেলে গহের আলী ম-ল (৩০)।

গুলিবিদ্ধ আহত ঢালারচর ইউনিয়নের রামনারায়ণপুর গ্রামের আমির হামজা (২২), সাহেব আলী মৃধা (৭০), আলম ম-ল (২৮), আব্দুল মালেক ব্যাপারি (৩৬), আব্দুর রশিদ ব্যাপারি (৪২), খলিল ম-ল (৪০), সোহরাব প্রামাণিককে (২২) বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ঢালারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি কোরবান আলী সরদার এবং দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সেক্রেটারি নাসির উদ্দিন বেপারীর মধ্যে বিরোধ উত্তেজনা চলছিল।

ভোলা ॥ লালমোহন উপজেলার ধলিগৌর নগর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডে মেম্বার প্রার্থী জাকির হোসেন ভূইয়া নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় প্রতিপক্ষ মেম্বার প্রার্থী তার চাচাত ভাই গিয়াস উদ্দিনের কর্মীরা তার ওপর হামলা চালিয়েছে। এ সময় মেম্বার প্রার্থী জাকির হোসেন ভূইয়াকে এলোপাতাড়ি কোপানো হয়। এতে তার বাঁ হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

নরসিংদী ॥ এখানে এক ইউপি মেম্বার প্রার্থীর উঠোন বৈঠকে অপর মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের হামলা, গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এ সময় ৩০ বাড়িঘর ভাংচুর ও ব্যাপক লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

বাউফল ॥ পটুয়াখালীর বাউফলে নওমালা ইউনিয়নের ভাংরা গ্রামে রবিবার দুপুরে বিদ্রোহী ঘোড়া মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাদা হাওলাদারের কর্মী কসাই ফারুক ও জলিলের নেতৃত্বে ৪০-৫০ জন সমর্থক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নৌকা মার্কার সমর্থক আজিজ চৌকিদার বাড়ির ৬টি এবং সুলতান মৃধা, মেছের মৃধা ও আজিজ মৃধা বাড়ির ৪টিসহ মোট ১০টি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে।

লক্ষ্মীপুর ॥ রামগতির চর পোড়াগাছা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। এ সময় বেশ কয়েকটি ফাঁকা গুলি করে আতঙ্ক সৃষ্টি করা হয়। শনিবার রাতে রামগতি উপজেলার স্থানীয় কোডেক বাজারে বিদ্রোহী প্রার্থীর পথসভায় হামলার পর এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

নাটোর ॥ পোস্টারিংয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে লালপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। এ সময় দলীয় প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও তছনছ করা হয়েছে। উপজেলার আব্দুলপুর বাজারে শনিবার রাত ৯টায় এই ঘটনা ঘটে।

নওগাঁ ॥ শনিবার রাত ৮টার দিকে ধামইরহাট উপজেলার ১নং ধামইরহাট ইউনিয়নের বিএনপি দলীয় প্রার্থী ওয়াজেদ আলী দেওয়ান কবির’র ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ওই ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের রূপনারায়ণপুর (নদীরঘাট) গ্রামে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছিলেন তার কর্মী-সমর্থকরা। এ সময় বিএনপি প্রার্থীর কর্মী রফিকুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম মিস্টার, মামুন রেজাসহ মোট ৫-৭ জন কর্মীরা ভোটারদের মাঝে ভোট কেনার জন্য নগদ টাকা, বিড়ি-সিগারেট বিতরণকালে স্থানীয়রা তা হাতেনাতে ধরে ফেলে। বিক্ষিপ্ত জনতার রোষানল থেকে বাঁচতে অর্থ বিতরণকারীরা মোটরসাইকেল, পোস্টার ও নগদ টাকার ব্যাগ ফেলে চম্পট দেয়। পরে স্থানীয়রা মোটরসাইকেল, পোস্টার ও নগদ ৫ হাজার ৮শ’ ৫০ টাকা উদ্ধার করে থানায় জমা দেয়।

প্রকাশিত : ২১ মার্চ ২০১৬

২১/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: