১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শিরোপাতেই দৃষ্টি অস্ট্রেলিয়ার


স্পোর্টস রিপোর্টার, ব্যাঙ্গালুরু থেকে ॥ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে গেছে মানেই অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেছে, এমনটি ভাবার কোন কারণ নেই। এখনও শিরোপাতেই দৃষ্টি আছে অস্ট্রেলিয়ার। সেখানে বাংলাদেশের বিপক্ষে আজকের ম্যাচটি নিয়ে ভাবছেই না অস্ট্রেলিয়া। অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথই যেমন বলেছেন, ‘কঠিন গ্রুপ। এই গ্রুপের দলগুলোও ভাল। আমরা শুরুটা ভাল করতে পারিনি। নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছি। তবে এটা এখন অতীত। আমরা জানি আমাদের প্রয়োজন, কি করতে হবে। আমাদের এখন প্রতিটি ম্যাচেই জিততে হবে। তাহলে ফাইনালে খেলতে পারব। আমাদের বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই আবার কামব্যাক করতে হবে এবং ভাল পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতাতেও ফিরতে হবে।’

উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সমস্যা হওয়ার কথা। কারণ উইকেটে ব্যাটিং যেমন ভাল হয়, তেমনি স্পিনটাও ধরে। আর সেটাতে ভালভাবেই দুর্বল অস্ট্রেলিয়া। তবে অসিরা দ্রুত মানিয়ে নেয়ার চেষ্টাই করছে। আর একাদশ গঠন নিয়েও আছে ঝামেলা। বাংলাদেশ কোচ চন্দিকা হাতুরাসিংহে সেই বিষয়টি সামনে তুলে ধরেছিলেন। স্মিথ অবশ্য এটাকে কোন সমস্যাই মনে করছেন না, ‘এটা বাংলাদেশের জন্য সুবিধা হবে, এমনটি নিশ্চিত নয়। আমরা কম্বিনেশন নিয়ে নিশ্চিত আছি। এ কন্ডিশনে কিভাবে খেলতে হয় তাও জানা আছে। আমরা প্রথম ম্যাচে ভাল খেলিনি ঠিক, কিন্তু এখানে ভিন্ন কিছুই হবে। আমরা জানি বাংলাদেশ থেকে কি পাব এবং আমরা প্রস্তুতও।’

বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় পেতেও আত্মবিশ্বাসী স্মিথ। বলেছেন, ‘সম্প্রতি আমরা অনেক ক্রিকেট খেলেছি। ক্রিকেটাররা ফর্মেও আছে। আশা করছি অন্য রাতের চেয়ে ভাল রাত হবে। জিতবও। এটা যেহেতু জিততেই হবে এমন ম্যাচ। আশা করছি দ্রুতই সেই কাজটি করতে পারব।’

স্পিন নিয়ে ভীতি থাকলেও তা নিয়েও চিন্তিত নন স্মিথ। বলেছেন, ‘আসলে চিন্তার কিছু নেই। এখানে আইপিএলের ম্যাচ হয়। একইরকম উইকেট। অনেক রান হয়। তাই তেমনই দেখা যাবে।’ বাংলাদেশকে প্রচ্ছন্ন হুমকিও যেন দিয়ে রাখলেন স্মিথ। সঙ্গে বাংলাদেশকে নিয়ে বললেন, ‘দলটি অনেক উন্নতি করেছে। চন্দিকা হাতুরাসিংহের তত্ত্বাবধানে অনেক এগিয়ে গেছে। অনেক শিখেছে। নিউ সাউথ ওয়েলসে তার সঙ্গে থাকার সুযোগ হয়েছে। গত কয়েক বছরে অনেক উন্নত হয়েছে। এটাই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জের।’

তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানিকে নিয়ে ক্রিকেটবিশ্বেই আলোচনা হচ্ছে। সেখানে স্মিথও বাদ যান কি করে। যখনই তাসকিন ও সানির বিষয়টি নজরে আনা হয়েছে স্মিথ বলেছেন, ‘তাদের এখনও লাইনআপে কয়েকজন ভাল বোলার আছে।

আমরা এ বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত নই। আমরা নিজেদের নিয়ে ভাবছি। কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়, সেই ভাবনাই করছি। আশা করছি, সাফল্য মিলবে।’ দেখা যাক শেষ পর্যন্ত কি হয়।