১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ভিলিয়ার্স ঝড়ে ঘুরে দাঁড়াল প্রোটিয়ারা


শাকিল আহমেদ মিরাজ ॥ টি২০ বিশ্বকাপে আফগানিস্তানকে হারিয়ে ঘুরে দাঁড়াল দক্ষিণ আফ্রিকা। মুম্বাইয়ে হাইস্কোরিং ম্যাচে ৩৭ রানের দারুণ এক জয় পেল প্রোটিয়ারা। টস জিতে ব্যাটিং নেয়া আফ্রিকানদের হয়ে ঝড় তোলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স-ফ্যাফ ডুপ্লেসিসরা। এবি’র ম্যারাথন হাফ সেঞ্চুরির সৌজন্যে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ২০৯ রানের বিশাল স্কোর গড়ে প্রোটিয়ারা। জবাব দিতে নেমে অবশ্য মোটেই ভড়কে যায়নি অসীম সাহসী আফগনরা। অলআউট হওয়ার আগে ১৭২ রান সংগ্রহ করে আসগর স্টনিকজাইয়ের দল। টর্নেডোর গতিতে শুরু করেছিলেন হালের তারকা আহমেদ শাহজাদ। এক পর্যায়ে ৩ ওভারে কোন উইকেট না হারিয়ে ৫২ রান তুলে নিয়েছিল আফগানিস্তান! দারুণ সব শটে গুলবাদিন নবি-নুর আলি জাদরানও দর্শক মন জয় করেন। যদিও শক্তিধর দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে শেষ পর্যন্ত পেরে ওঠেননি তারা।

২২৯ রানের পুঁজি নিয়েও নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা! সেমির রেসে টিকে থাকতে বাছাই পেরিয়ে আসা আফগানিস্তানের বিপক্ষে তাই জয়ের বিকল্প ছিল না। ম্যাচের আগে অধিনায়ক ফ্যাফ ডুপ্লেসিসও সেটি বলেছিলেন। দেখার ছিল বড় টুর্নামেন্টের দুর্ভাগা দলটি কি করে। প্রতিপক্ষকে রানের পাহাড়ে চাপা দেয়ার মানসিকতায় টস জিতে ব্যাটিং নেন ডুপ্লেসিস। অধিনায়কের সিদ্ধান্তের মূল্য দিতে নেমেই ব্যাটসম্যানরা তা-ব চালাতে শুরু করেন। দলীয় ২৫ রানে হাসিম আমলাকে (৫) হারালেও অন্যরা তা বুঝতে দেননি। অপর ওপেনার কুইন্টন ডি কক ৩১ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় ৪৫, ডুপ্লেসিস ২৭ বলে ৭ চার ও ১ ছক্কায় করেন ৪১ রান। আফগান বোলারদের ওপর দিয়ে বড় তা-বটা চালিয়েছেন বড় তারকা ডি ভিলিয়ার্স। মাত্র ২৯ বলে ৬৪ রান করে আউট হন তিনি। টি২০ ক্যারিয়ারের অষ্টম হাফ সেঞ্চুরির পথে ৪ চারের বিপরীতে ছক্কা ৫টি!

শেষদিকে ‘কিলার’ মিলার ৮ বলে ১৯ রান করে আউট হলেও ২০ বলে ২৯ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন ডুমিনি। আফগানিস্তানের হয়ে আমির হামজা, দৌলত জাদরান, শাপুর জাদরান ও মোহাম্মদ নাবি নেন ১টি করে উইকেট। জবাবে ব্যাট হাতে আফগানদের লড়াকু মানসিকতা ফুটে ওঠে। যেখানে যথারীতি ‘স্পটলাইটে’ শাহজাদ। আউট হওয়ার আগে ১৯ বলে ৩ চার ও ৫ ছক্কায় ৪৪ রান করেন দলটির হালের আলোচিত এই ওপেনার! মরিসের বলে শাহজাদ বোল্ড হয়ে ফেরার পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় আফগানিস্তান। তবে প্রায় সবাই বুক চিতিয়ে আস্কিং রেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে চেয়েছেন। গুলবাদিন নবি ১৮ বলে ২৬, সামিউল্লাহ শেনওয়ারি ১৪ বলে ২৫, নুর আলি জাদরান ২৪ বলে ২৫ রান করেন। ঠিক ২০ ওভারে ১৭২ রানে অলআউট হয় আফগানরা। টি২০তে পরে ব্যাট করে টেস্ট প্লেয়িং দেশের বিপক্ষে কোন সহযোগী দলের এটাই সর্বোচ্চ দলীয় রান। ২৭ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা মরিস।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: