২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সমালোচনা-ব্যঙ্গ নয়, এ বার পাক মিডিয়াতেও বিরাট-বন্দন


সমালোচনা-ব্যঙ্গ নয়, এ বার পাক মিডিয়াতেও বিরাট-বন্দন

অনলাইন ডেস্ক ॥ একটা সময় ছিল যখন ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ হলেই পাক মিডিয়াগুলো নানা রকম মজা, ব্যঙ্গ করত ভারতীয় দলকে নিয়ে। ভারত-পাক ম্যাচ মানেই মার মার কাট কাট। সোশ্যাল মিডিয়ার রমরমা বাজার যখন ছিল না মিডিয়াগুলোই তখন এই সোশ্যাল মিডিয়ার ভূমিকা পালন করত। ভারত যদি পাকিস্তানের কাছে হারত, তখন পাক মিডিয়াগুলোর চিত্রই বদলে যেত। ভারতকে কটূক্তি করতে কার্পণ্য করত না। আবার পাকিস্তান যদি ভারতের কাছে হারত, সেক্ষেত্রেও রেহাই দেওয়া হত না ভারতকে। কিন্তু আশ্চর্যজনক ভাবে সেই ট্রেন্ডের কিছু ‘বদল’ এনেছে পাক মিডিয়াগুলো। শনিবার ইডেনে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হয়েছিল টি-টোয়েন্টিতে। পাকিস্তান হারল অথচ কোনও ব্যঙ্গ বা কটূক্তি নেই পাক মিডিয়ায়! সরাসরি ভাবে ভারতের খেলা নিয়ে প্রশংসা না করলেও পাক অধিনায়কের মুখের কথাই যেন সেখানকার মিডিয়াগুলো বসিয়ে দিয়েছে দিব্যি! হেরে যাওয়ার পর পাক অধিনায়ক আফ্রিদি বলেন, “ভারতীয় বোলাররা দারুণ বল করেছে। বিশেষ করে স্পিনাররা। আর বিরাটও চাপের মুখে দারুণ খেলেছে।” পাক অধিনায়কের মুখের কথা টেনেই পরোক্ষে বিরাট বন্দনা করেছে পাক মিডিয়াগুলো।

ম্যাচ শুরুর আগে থেকেই যে ভাবে দু’দেশের ক্রিকেট ভক্তদের মধ্যে ‘সোশ্যাল ওয়ার’ হয়েছে, তার এত টুকুও ছাপ পড়েনি পাক মিডিয়ায়। দল ভাল না খেললেই সব দেশের মিডিয়াতেই কিছু না কিছু সমালোচনা হয়। পাশাপাশি, প্রতিপক্ষ দলকেও বাক্যবাণে বিঁধতে ছাড়ে না। ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে ম্যাচ হওয়া মানেই সব সময় একটা উত্তাপ থাকে। তা সে মিডিয়াই হোক বা দেশবাসী! কিন্তু শনিবারের খেলার পর পাক মিডিয়াগুলো কার্যত যে ভাবে ভারত-বন্দনা করল তা সত্যিই আশ্চর্য হওয়ার মতোই। তা হলে কি এ বার পাক মিডিয়াগুলোও দু’দেশের সম্পর্কের উন্নতিতে এগিয়ে আসতে চাইছে? যদি হয় তা হলে একটা নতুন অধ্যায়ের সূচনা হবে এখান থেকেই।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা