মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

লিবিয়ায় ‘বাংলাদেশিসহ’৬০০ শরণার্থী উদ্ধার

প্রকাশিত : ২০ মার্চ ২০১৬, ১১:৫৮ এ. এম.
লিবিয়ায় ‘বাংলাদেশিসহ’৬০০ শরণার্থী উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক ॥ লিবিয়ার পশ্চিম উপকূলে চারটি নৌকা থেকে বাংলাদেশিসহ ৬০০ শরণার্থীকে উদ্ধার করার খবর দিয়েছে রয়টার্স।

ইটালির কোস্ট গার্ড সিসিলি প্রণালী থেকে আরও ৯০০ শরণার্থীকে উদ্ধার করেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থাটি।

লিবিয়ার নৌবাহিনীর মুখপাত্র আইয়ুব কাশেমের বরাতে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, শনিবার ভূমধ্যসাগরে ইউরোপমুখী চারটি নৌকা থেকে তারা ছয়শ জনকে উদ্ধার করেন। এর মধ্যে একটি নৌকা ডুবে গিয়েছিল।

কাশেম জানান, উদ্ধার হওয়া শরণার্থীরা অভিবাসীরা বাংলাদেশ ও সাব সাহারান আফ্রিকার দেশগুলোর নাগরিক।

তবে তাদের মধ্যে কতোজন বাংলাদেশের নাগরিক বা তাদের পরিচয় কী- সে বিষয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদনে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি।

এ বিষয়ে লিবিয়ায় বাংলাদেশ মিশনের কোনো বক্তব্যও পাওয়া যায়নি।

উদ্ধার অভিযানে চার অভিবাসী নারীর মৃতদেহ পাওয়া গেছে সাগরে। বেশ কয়েকজনের নিখোঁজ থাকার কথাও কাশেম জানিয়েছেন।

এদিকে পৃথক চার অভিযানে নয়শর বেশি শরণার্থীকে উদ্ধারের কথা জানিয়েছে ইটালি কর্তৃপক্ষ।

দেশটির কোস্টগার্ড শনিবার সিসিলি প্রণালী থেকে ৩৭৮ জনকে উদ্ধার করে বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়ন বর্ডার এজেন্সি ফ্রনটেক্স ১১২ জন এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের ইইউএনএভিএফওআর মিশন বাকি ৪২০ জনকে উদ্ধারের কথা জানিয়েছে।

তবে ইটালিতে উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের নাগরিকত্ব সম্পর্কে রয়টার্সের প্রতিবেদনে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি।

২০১৫ সালের শুরু থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপমুখী অভিবাসনের এই ঢলকে সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে বড় শরণার্থী সঙ্কট বলা হচ্ছে। গত ১৫ মাসে অন্তত ১২ লাখ মানুষ অবৈধভাবে ইউরোপে প্রবেশ করেছে, যাদের অধিকাংশই আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের নাগরিক।

ভূমধ্যসাগর দিয়ে ইউরোপজুড়ে মাদক ও মানবপাচারের নতুন পথ হিসেবে লিবিয়াকে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে সম্প্রতি ইউরোপীয় ইউনিয়নের এক সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে।

প্রকাশিত : ২০ মার্চ ২০১৬, ১১:৫৮ এ. এম.

২০/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: