২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

শ্রীনগরে হ্যান্ডকাফসহ ধর্ষণ মামলার আসামী পলায়নের ৭ ঘন্টা পরে পিরোজপুর থেকে গ্রেপ্তার


স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ শ্রীনগরে হ্যান্ডকাফসহ এক ধর্ষণ মামলার আসামী পালিয়ে যাওয়ার ৭ ঘন্টা পরে আবারো গ্রেপ্তার হয়েছে। এর শনিবার সকাল সাতটার দিকে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুলিশ পাহারায় চিকিৎসারত অবস্থায় র্ধষণ মামলার আসামী মুহিত বেপারী (২৫) পালিয়ে যায়। মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীনগর থানার এসআই সোমনাথ জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় মাশুরগাও ফেরিঘাট এলাকার নার্সারী মালিক হোসেন বেপারীর ছেলে মুহিত বেপারী ওই এলাকার তৃতীয় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। এসময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে আশ-পাশের লোকজন এসে মুহিতকে গন ধোলাই দেয়। পরে পুলিশ এসে মুহিতকে আটক করে এবং চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দোতলার পুরুষ ওয়ার্ডে ভর্তি করে। শুক্রবার রাতেই ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শ্রীনগর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

পরে শনিবার সকাল সাতটার দিকে আসামী মুহিত বাথরুমের ভেল্টিলেটর ভেঙ্গে হ্যান্ডকাফসহ পালিয়ে যায়। এসময় শ্রীনগর থানার কনষ্টেবল আঃ বারেক ও আঃ রউফ আসামীকে পাহারা দেওয়ার দায়িত্ব পালন করছিল। পরে পুলিশের ব্যাপক অভিযানে শনিবার দুপুর ২টার দিকে মুহিতকে পিরোজপুরের স্বরূপকাটির জগন্নাথকাটি গ্রাম থেকে পিরোজপুর পুলিশের সহযোগিতায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি শ্রীনগর সার্কেল) মোঃ সামসুজ্জামান বাবু জানিয়েছেন, আসামী মুহিত কিভাবে পালিয়ে গেলো তা তদন্ত চলছে। কর্তব্যরত দুই পুলিশ কনষ্টবলদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তাছাড়া পালিয়ে যাওয়ায় মুহিতের বিরুদ্ধে আরো একটি মামলার প্রক্রিয়া চলছে। পালিয়ে যাওয়া মুহিতকে পুলিশ শনিবারই আবার গ্রেপ্তার করেছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: