মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৬ জুন ২০১৭, ১২ আষাঢ় ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

‘আওয়ামী লীগ সরকার প্রবাসীদের মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত করেছে’

প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৬, ০৫:৪৭ পি. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগে প্রবাসীদের অবহেলা ও বঞ্চনার চোখে দেখা হতো। কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকার প্রবাসীদের মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত করেছে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রবাসীদের অবদান অনেক। তারা এখন দেশে আরও বিনিয়োগ করতে পারেন। কেবল জমি ও বাড়িতে বিনিয়োগ না করে তারা উৎপাদনশীল খাত ও ব্যবসা-বাণিজ্যের দিকে নজর দিতে পারেন। প্রবাসীদের জন্য বর্তমান সরকারের দরজা সবসময় খোলা। শনিবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ‘উন্নয়নে প্রবাসী-সমৃদ্ধিতে প্রবাসী’ শীর্ষক এক সম্মেলনে বক্তারা এ কথা বলেন। সেন্টার ফর নন রেসিডেন্ট বাংলাদেশিস (এনআরবি) এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সংগঠনটি চলতি মার্চ থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের স্বার্থ সুরক্ষায় সিরিজ কনফারেন্স করবে। অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম অন্য অতিথিদের সঙ্গে এদিন সেই কনফারেন্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, পরিযায়ী পাখির মতোই বাংলাদেশের প্রবাসীরা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। ফলে সারা পৃথিবীতেই এখন বাংলাদেশিরা পরিচিত হয়ে উঠছেন। তিনি বলেন, আগে প্রবাসীদের অবহেলা ও বঞ্চনার চোখে দেখা হতো। কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকার প্রবাসীদের মর্যাদার চোখে দেখে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গবর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনকে আজীবন সম্মননা দেয়া হয়। সম্মননা গ্রহণ করে তিনি বলেন, প্রবাসীরা বাংলাদেশের মানুষের হৃদয়ে। বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীনের পর যখন যেই দেশে যেতেন স্বাধীনতা সংগ্রামে সেখানকার প্রবাসীদের ভূমিকার প্রশংসা করে দেশ গড়তেও অবদান রাখতে বলতেন। বঙ্গবন্ধুর মতোই তাঁর কন্যা শেখ হাসিনাও প্রবাসীদের মর্যাদা দিচ্ছেন। অনুষ্ঠানে এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যেমন প্রবাসীদের অনেক অবদান তেমনি গণতন্ত্রে ফিরিয়ে আনার পেছনেও তাদের অবদান আছে। প্রায় এক কোটি বাংলাদেশি এখন প্রবাসে। তারা দেশ গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। তবে কেবল জমি ও বাড়িতে বিনিয়োগ না করে প্রবাসীদের উৎপাদনশীল খাত ও ব্যবসা-বাণিজ্যে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এনআরবির চেয়ারম্যান সেকিল চৌধুরী। এছাড়া মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি নাসিম মঞ্জুর, ঢাকা চেম্বারের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হুমায়ুন রশীদ, ঢাকায় নিযুক্ত অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার গ্রেগ উইল কর্ক, মার্কিন দূতাবাসের ইকোনমিক শাখার প্রধান ব্র্যাড স্টিল উইল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে সিরিজ কনফারেন্সের সাফল্য কামনা করে দেয়া রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পৃথক বাণী পড়ে শোনানো হয়। যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশি প্রবাসীদের কনফারেন্স আয়োজন উপলক্ষে দেয়া রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের বাণীও পড়ে শোনানো হয়। মার্চ থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে কমপক্ষে ১০টি প্রবাসী কনফারেন্স হবে জানানা আয়োজকরা।

প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৬, ০৫:৪৭ পি. এম.

১৯/০৩/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: