২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আফগানিস্তানে অপহৃত দু’ব্রাক কর্মকর্তার বাড়িতে চলছে আহাজারি


আফগানিস্তানে অপহৃত দু’ব্রাক কর্মকর্তার বাড়িতে চলছে আহাজারি

নিজস্ব সংবাদদাতা, পাবনা ॥ আফগানিস্তানে অপহৃত ব্র্যাকের দুই কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম ও হাজি শওকত আলীর পাবনার বাড়িতে স্বজনদের মধ্যে চলছে আহাজারি। অপহৃত দু’জনের স্বজনদের এ খবর জানার পর থেকেই কান্না যেন থামছেনা। তাদের পরিবার যেন কিছুতেই এ অপহরের ঘটনা বিশ্বাস করতে চাইছেন না। সিরাজুল ইসলাম সুমন পাবনা সদর উপজেলার দুবলিয়া গ্রামের এজেম উদ্দিন খানের ছেলে এবং অপহৃত অপরজন হাজী শওকত ফরিদপুর উপজেলার হাঙরাগাড়ি গ্রামের মৃত মোস্তাক হোসেনের ছেলে।

সুমনের দুবলিয়ার বাড়ীতে গিয়ে দেখা যায়, তার স্ত্রী লতা খাতুনের কান্নার যেন শেষ নেই। বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন তার বৃদ্ধ বাবা-মা। পরিবারের অভিযোগ, ব্র্যাক থেকে এখন পর্যন্ত তাদের সাথে যোগাযোগ করেনি। জানায়নি কোনো সহমর্মিতাও। প্রবাসের এমন অপহরণের ঘটনায় পরিবারের পাশাপাশি উদ্বীগ্ন এলাকাবাসীও।

পারিবারের সদস্যরা জানান, সুমন ২ ভাই, ৩ বোনের মধ্যে তৃতীয়। বেসরকারী সংস্থা ব্র্যাকে চাকুরী করেন গত ১০ বছর ধরে। আফগানিস্তানে আছেন ২০১২ সালের শুরু থেকে। সর্বশেষ ছুটিতে গ্রামে বাড়ি এসে চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি ফিরে যান কর্মস্থল আফগানিস্তানে। দুই বছর আগে বিয়ে করলেও সন্তান নেই তাদের সংসারে। আর অপহৃত অপরজন হাজি শওকতের বাড়ি জেলার ফরিদপুর উপজেলার হাঙরাগাড়ি গ্রামে। তার বাবার নাম মৃত মোস্তাক হোসেন। শওকতের মা ও স্ত্রী সন্তান থাকে ঢাকার উত্তরায়।

অপরদিকে হাজি শওকত আলীর ভায়রা আবু বকর সিদ্দিক জানান, অপহরণের ঘটনা আমরা শুনেছি। শোনার পর থেকে আমরা খুব টেনশনে আছি। তিনি জানান, শওকত আলীর মা, স্ত্রী ও ১ ছেলে এবং ১ মেয়ে সবাই ঢাকার উত্তরায় বসবাস করে। ফরিদপুরে কেউ থাকে না। প্রবাসের এমন অপহরণের ঘটনায় আতংক ও উদ্বিগ্ন এলাকাবাসীর দাবি, সুস্থ্যভাবে দেশে ফিরিয়ে আনা হোক অপহৃত দুই কর্মকর্তাকে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: