১৫ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পুলিশের ১৮ সদস্য পেলেন শ্রেষ্ঠ পুরস্কার


স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও তদন্ত পরিচালনা এবং ভাল কাজের জন্য ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের উপ-কমিশনার পর্যায় থেকে উপ-পরিদর্শক পর্যন্ত মোট ১৮ পুলিশ সদস্য শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার পেয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের (ডিএমপি) হেড কোয়ার্টার্সে আয়োজিত মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় এ পুরস্কার ঘোষণা করেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। এরমধ্যে টানা পঞ্চমবারের মতো শ্রেষ্ঠ উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) পুরস্কার পেয়েছেন ডিএমপি তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) বিপ্লব কুমার সরকার। এদিকে রাজধানীর অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও তদন্ত পরিচালনার জন্য মোহাম্মদপুর জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (এসি) হাফিজ আল ফারুক, পল্লবী জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) এ বি এম জাকির হোসনে, ওয়ারী জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) নুরুল আমিন, গেন্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মিজানুর রহমান, গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি(তদন্ত) মোঃ ফিরোজ কবীর ও পল্লবী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ রাসেলকে পুরস্কৃত করা হয়েছে।

অপরদিকে মামলার রহস্য উদঘাটনের জন্য বিশেষ পুরস্কার পেয়েছেন উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশনের সহকারী পুলিশ কমিশনার হোসনে আরা বেগম, রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম, মোহাম্মদপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জানে আলম মুন্সী, রূপনগর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মতলুবুর রহমান, কামরাঙ্গীচর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ কামরুজ্জামান, উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ হিমায়েত হোসেন, দারুস সালাম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ সাইফুল ইসলাম, যাত্রাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) পরিমল চন্দ্র দাস। ছিনতাইকারী গ্রেফতারের জন্য বিশেষ পুরস্কার লাভ করেন ডিএমপির (উত্তর) ট্রাফিক বিভাগের ট্রাফিক ইনেসপেক্টর (টিআই) মোঃ আব্দুল আলীম চৌধুরী।

অন্যদিকে উত্তম কাজে পুলিশের ভাবমূর্তি বাড়ানো জন্য বিশেষ পুরস্কার লাভ করেন ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের কনস্টেবল শ্রী লিটন সুতার। তিনি গত ১৯ জানুয়ারি রাজধানীর শেরাটন মোড়ে রাস্তার পাশে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৫৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা মূল্যমানে পে-অর্ডার ও মূল্যবান কাগপত্র কুড়িয়ে পেয়ে মিডিয়া এ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকারকে অবহিত করেন। তার মাধ্যমে প্রকৃত মালিক সামিট কমিউনিকেশনস লিমিটেডকে এসব ফেরত দেওয়া হয়।

মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে রাজধানীর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও অপরাধ প্রবনতা ও বিভিন্ন মামলার তদন্ত বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

ডিএমপির কমিশনার আছাদুজ্জামন মিয়ার সভাপতিত্বে মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ডিএমপি’র সব বিভাগের যুগ্ম-কমিশনার, উপ-কমিশনার (ডিসি), অতিরিক্ত কমিশনার (এডিসি) সহকারী কমিশনারসহ (এসি) রাজধানীর ৪৯টি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি) উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: