২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

তারেক রহমানকে আবার সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান করতে বিএনপির গঠনতন্ত্র সংশোধন


স্টাফ রিপোর্টার ॥ খালেদা জিয়ার লন্ডন প্রবাসী ছেলে ও একাধিক মামলার ফেরারি আসামী তারেক রহমানকে আবারও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হচ্ছে। তাই বিএনপির আসন্ন জাতীয় কাউন্সিলে চেয়ারপার্সনের মতো সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদেও নির্বাচন করতে বুধবার রাতে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে দলের গঠনতন্ত্র সংশোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান চেয়ারপার্সনের সঙ্গে ভাইস চেয়ারম্যান পদেও নির্বাচন করতে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে গঠনতন্ত্র সংশোধন করা হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুসারে জাতীয় কাউন্সিলের আগেই চেয়ারপার্সন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন করা হবে।

উল্লেখ্য, ছয় বছরেরও বেশি সময় আগে অর্থাৎ ২০০৯ সালের ৮ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ বিএনপির জাতীয় কাউন্সিলে খালেদা জিয়াকে চেয়ারপার্সন পদে রেখে তাঁর ছেলে তারেক রহমানকে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব থেকে পদোন্নতি দিয়ে গঠনতন্ত্র সংশোধন না করেই সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত করা হয়। তখন এ নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে কথা উঠলেও বিএনপি চেয়ারপার্সন এতে কর্ণপাত করেননি। তবে এবার তিনি নিজেই গঠনতন্ত্র সংশোধন করে তারেক রহমনকে ভাইস চেয়ারম্যান করার সিদ্ধান্ত নেন। এ জন্যই স্থায়ী কমিটির বৈঠকে গঠনতন্ত্রের ১৯(ক) ধারা সংশোধন করে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদ সৃষ্টি করা হয়। এর মাধ্যমে এবার জাতীয় কাউন্সিলের আগে দলের চেয়ারপার্সন নির্বাচনের সঙ্গে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদেও নির্বাচন হবে।

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, স্থায়ী কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে দলের চেয়ারপার্সন নির্বাচনের সঙ্গে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচনের লক্ষ্যে দলীয় গঠনতন্ত্রে প্রয়োজনীয় সংশোধন আনার জন্য দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে অনুরোধ করা হয়, গঠনতন্ত্রে যে অধিকার তার রয়েছে। স্থায়ী কমিটির সুপারিশের প্রেক্ষিতে চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া গঠনতন্ত্রের ১৯(ক) ধারায় প্রয়োজনীয় সংশোধন অনুমোদন করেছেন। তিনি বলেন, সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলের চেয়ারপার্সন ও ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন পরিচালনার জন্য একটি নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়। এই কমিশনের চেয়ারম্যান মনোনীত করা হয়েছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকারকে। আর এ কমিটির সদস্য এ্যাডভোকেট হারুন অর রশিদ (ভাইস চেয়ারম্যান) এবং সদস্য সচিব ব্যারিস্টার মোহাম্মদ আমিনুল হক (সদস্য নির্বাহী কমিটি)। কমিশন যথাসময়ে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করাসহ প্রাসঙ্গিক অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: