মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

পুঁজিবাজার ফটকা বাজার নয় ॥ পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, ০১:৫৭ এ. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পুঁজিবাজারে যারা বিনিয়োগ করতে আসবেন তাদের জ্ঞানার্জনের পরামর্শ দিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন পুঁজিবাজার এখন আর ফটকা বাজার নয়, এ বাজার বৈজ্ঞানিক ও অর্থনীতির ওপর নির্ভর করে। পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে হলে বুঝে শুনে করতে হবে। যারা পুঁজিবাজার সম্পর্কে বোঝে না তাদের এখানে বিনিয়োগ না করা ভাল।

বুধবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে তার অফিসের সম্মেলন কক্ষে মার্চেন্ট ব্যাংকার্স এ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন। এ সময় বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংক এ্যাসোসিশেয়নের সভাপতি সাইয়েদুর রহমান, লংকা বাংলা ফাইন্যান্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার কায়েস হাসান, প্রাইম ফাইন্যান্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোশারফ হোসেনসহ অন্য প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজারে লম্বা সময় ধরে বিনিয়োগকারীদের টিকে থাকতে হয় এটা কাঁচা বাজারের মতো ক্ষণস্থায়ী বাজার নয়। না বুঝে, না শুনে জমিজমা বিক্রি করে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করা উচিত নয়। পুঁজিবাজার সম্পর্কে বুঝেই এই বাজারে আসতে হবে। তবে আমাদের অর্থনীতি যে জায়গায় দাঁড়িয়েছে সেখান থেকে পুঁজিবাজারের দিকে তাকালে পুঁজিবাজারের অবস্থা ভাল বোঝা যায়। আমাদের দেশের অর্থনীতি অনেক ভাল এই বাজার আর নিচে নামবে না। বাজার নিজেই তার পথ খুঁজে নেবে। মন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজারে দান খয়রা করতে আসেন না বিনিয়োগকারীরা। এখানে মুনাফা অর্জনের জন্যই আসেন। কে কত টাকা বাজার থেকে মুনাফা করেছে- সে বিষয়টি খুব বেশি আলোচনা হওয়া উচিত নয়। আপডেট তথ্য ও কৌশল জানার ওপরে নির্ভর করে এ বাজার থেকে বিনিয়োগকারীরা মুনাফা অর্জন। তাই ব্যবসার পরিবেশ বজায় রাখতে এ বিষয়ে বিনিয়োগকারীদের জ্ঞানার্জন করা প্রয়োজন।

পুঁজিবাজার রিলেটেড যত সংস্থা রয়েছে, যেমন বাংলাদেশ ব্যাংক, অর্থ মন্ত্রণালয় ও সিকিউরিটি এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন ইত্যাদি যে যার অবস্থান থেকে কাজ করলে কোন সমস্যা হবে না। তার পরও কোন সমস্যা দেখা দিলে সবাইকে এক সঙ্গে বসতে হবে। যেগুলো সমস্যা আছে সেগুলোর সমাধান করতে হবে। পুঁজিবাজার উন্নয়নে দরকার দীর্ঘমেয়াদী একটি পরিকল্পনা। কিভাবে বাজারকে আমরা দেখতে চাই। সেই পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজারে পলিসি দিয়ে মার্কেটকে সাপোর্ট দেয়া যায়, কিন্তু মার্কেট টেকসই হয় না। এর আগে বৈঠকের সময় তিনি আরও বলেন, দেশের অর্থনীতির স্বাস্থ্য ভাল হলেও সে তুলনায় পুঁজিবাজারের সহায়ক কিছু হচ্ছে না। এর কারণ হচ্ছে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টদের বিশ্বাসের অভাব। এ সময় বৈঠকে উপস্থিত দায়িত্বশীলদের বলেন, পুঁজিবাজারে সাফার সার্ভিস চালু করা দরকার। যাতে করে ক্ষতিগ্রস্তরা কিছুটা সুফল পায়। বাজার ক্ষতিগ্রস্ত হলে সরকারের বিরুদ্ধে কথা আসবেই। বাজার অস্বাভাবিকভাবে ওঠানামা করার কারণ খুঁজে বের করতে হবে। এ বাজারে দীর্ঘমেয়াদী একটা পরিকল্পনা দরকার, কিভাবে পুঁজিবাজারকে দেখতে চাই। অনেকে চাইবে ১০ টাকা থেকে ১০০ টাকা করতে। এটাকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য একটি দীর্ঘমেয়াদী প্ল্যান দরকার ।

তিনি বলেন, কোন দেশের অর্থনীতি পুঁজিবাজার বাদ দিয়ে চলতে পারে না। এ বাজারের আরও উন্নয়ন করতে হবে। বাজারের রেগুলেশন ও আইন আরও শক্তিশালী করতে হবে। দেশের পুঁজিবাজার আগামীতে আরও শক্তিশালী হবে। কারণ, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা অনেক ভাল।

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, ০১:৫৭ এ. এম.

১১/০২/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: