মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

সংসদ রিপোর্টার ॥ রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকার ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা মুক্তিযুদ্ধকে কটাক্ষকারীদের কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে দ্রুত একটি আইন প্রণয়নের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে বলেছেন, খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী সন্ত্রাসী-জঙ্গী ও সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে দেশের জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে। দেশের জনগণ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি, উন্নয়ন, অগ্রগতি ও প্রগতিকে বেছে নিয়েছে। তাই ষড়যন্ত্র করে কোন লাভ হবে না। এই অপশক্তিরা কোনদিনই ক্ষমতায় আসতে পারবে না, জনগণ আসতে দেবে না। খালেদা জিয়া ষড়যন্ত্রের রাজনীতিতে বিশ্বাস করেন বলেই তাকে সুস্থ রাজনীতির ধারায় কোনদিন ফেরত আনা যাবে না। মহান মুক্তিযুদ্ধকে কটাক্ষ এবং শহীদদের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় খালেদা জিয়াকে দেশের জনগণ কোনদিন ক্ষমা করবে না।

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এবং পরে ডেপুটি স্পীকার এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়ার সভাপতিত্বে বুধবার আলোচনায় অংশ নেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট তারানা হালিম, সাবেক চীফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদ, সাবেক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) এ বি তাজুল ইসলাম, এইচ এন আশিকুর রহমান, উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়, নজরুল ইসলাম বাবু, শিরীন নাঈম, ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি, সাবিনা আখতার তুহিন, নাসিমা ফেরদৌসী, মমতাজ বেগম, ওয়ার্কার্স পার্টির মুস্তফা লুৎফুল্লাহ ও জাতীয় পার্টির পীর ফজলুর রহমান।

আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, বিএনপি মানে- পাকিস্তানী জাতীয়তাবাদী দল। দেশের জনগণ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি, উন্নয়ন ও প্রগতিকে বেছে নিয়েছে। জঙ্গী-সন্ত্রাস-সাম্প্রদায়িকতা ও অন্ধকারের শক্তিকে প্রত্যাখ্যান করেছে। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে তা প্রমাণ হয়েছে।

সাবেক চীফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদ বলেন, পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়া বিএনপির অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। খালেদা জিয়া জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিলে আজ সংসদে অংশগ্রহণ করতে পারতেন। কিন্তু তারা জোর করে ক্ষমতায় আসতে চেয়েছিল।

খালেদা জিয়ার উদ্দেশে ক্যাপ্টেন (অব) তাজুল ইসলাম বলেন, একাত্তরে পাকিস্তানী শাসকদের কাছে আরাম আয়াসে থাকার কারণে মুক্তিযুদ্ধের মর্ম আপনি বোঝেন না। আপনি আজ ত্রিশ লাখ শহীদের সংখ্যা নিয়েও অবমাননা করেন। মুক্তিযুদ্ধের প্রতি আপনার অবজ্ঞার কারণে দেশের মানুষ আপনাকে দেশ থেকে উৎখাত করবে।

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

১১/০২/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: