২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

দ্বিতীয় দফায় পৌর ভোট ২০ মার্চ


স্টাফ রিপোর্টার ॥ দ্বিতীয় দফায় নির্বাচনের জন্য দশ পৌরসভার তফসিল ঘোষণা করেছে ইসি। এসব পৌরসভায় আগামী ২০ মার্চ ভোট গ্রহণ করা হবে। বুধবার ইসির উপ সচিব সামসুল আলম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এসব পৌরসভার তফসিল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগ্রহী প্রার্থীদের আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি সোমবারের মধ্যে নিজের মনোনয়নপত্র দাখিল করতে হবে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে। মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ২৪ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি বুধ ও বৃহস্পতিবার। এছাড়া প্রত্যাহারের দিন ধার্য করা হয়েছে ৪ মার্চ শুক্রবার।

দ্বিতীয় দফায় যেসব পৌরসভায় নির্বাচন হবে তার মধ্যে রয়েছে রংপুরের হারাগাছ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ঝালকাঠী, নোয়াখালীর কবিরহাট, কুমিল্লার নাঙ্গলকোট, ফরিদপুরের ভাঙ্গা, কক্সবাজারের চকরিয়া, মহেশখালী, গাজীপুরের কালিগঞ্জ ও ফেনীর সোনাগাজী। গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর সারাদেশের প্রথমবারের মতো ২৩৪ পৌরসভায় দলভিত্তিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরপরই দ্বিতীয় দফায় নির্বাচনের জন্য বুধবার তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির সৌজন্য সাক্ষাত ॥ প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দিন আহমেদসহ কমিশনের অন্য সদস্যরা বুধবার রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন। বিকেলে ইসির সদস্যরা বঙ্গভবনে যান রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত করতে। এ সময় তাদের মধ্যে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে ফিরে ইসি সচিব মোঃ সিরাজুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, বর্তমান কমিশনের চার বছর পূর্তি হয়েছে। এছাড়া সামনে ইউপি নির্বাচন। তাই সৌজন্য সাক্ষাতে ইউপি নির্বাচনসহ আগের নির্বাচনগুলো নিয়েও কথা হয়েছে।

জানা গেছে, বর্তমান কমিশনের চার বছর পূতি উপলক্ষে ইসি সদস্যরা রাষ্ট্রপতি সঙ্গে সাক্ষাত করলেও মূলত সেখানে চার বছরের কাজের অগ্রগতি ও আসন্ন নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। বুধবার বিকেল পৌন ৩টায় শেরেবাংলা নগরে ইসি কার্যালয় থেকে বঙ্গভবনের উদ্দেশে রওনা হওয়ার সময় সিইসি সাংবাদিকদের বলেন, আমরা তো প্রতিবছরই যাই রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত করতে। আজ (বুধবার) হঠাৎ করে যাচ্ছি সাক্ষাতে। নির্বাচন কমিশনার আবু হাফিজও বলেন, সৌজন্য সাক্ষাত করতে রাষ্ট্রপতির কাছে যাচ্ছি। এ সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার ছাড়াও অন্য সদস্যদের মধ্যে আবদুল মোবারক, আবু হাফিজ, জাবেদ আলী ও ইসি সচিব মোঃ সিরাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। অপর নির্বাচন কমিশনার মোঃ শাহনেওয়াজ দেশের বাইরে থাকায় সাক্ষাত অনুষ্ঠানে উপস্থি ছিলেন না।

ইউপি নির্বাচনের তফসিল আজ অথবা রবিবার ॥ সারাদেশে ইউপি নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। চলছে তফসিলের প্রস্তুতি। তবে কমিশন সূত্রে জানা গেছে, আজ বৃহস্পতিবার প্রথম দফায় তফসিল ঘোষণা করার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে আজ তফসিল ঘোষণা করা সম্ভব না হলে আগামী রবিবার তফসিল ঘোষণা করা হতে পারে। ইসি সচিব মোঃ সিরাজুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছে, রবিবারের মধ্যে প্রথম দফায় তফসিল ঘোষণা করা হবে। এ ক্ষেত্রে ৬-৭ দফায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মার্চেই অনুষ্ঠিত হবে দুই দফা নির্বাচন। অবশিষ্ট নির্বাচন হবে এপ্রিলে। প্রতি দফায় ভোট হবে ৫ শতাধিক ইউপিতে উল্লেখ করেন। এর আগে নির্বাচন কমিশনার জাবেদ আলী বলেন, বৃহস্পতিবারের মধ্যে তফসিল ঘোষণা বিষয়ে উল্লেখ করেন।

কমিশন জানিয়েছেন ইতোমধ্যে ইউপি নির্বাচনের বিধিমালা ও আচরণ বিধি ভেটিং হয়ে কমিশনের ফেরত এসেছে। ইসি সচিবালয় সংশোধিত নির্বাচন বিধিমালা ও আচরণবিধির যে খসড়া ভেটিংয়ে পাঠানো হয়েছিল তাতে প্রার্থিতা বাতিলের ক্ষমতা কমিশনের হাতে রাখার প্রস্তাব অনুমোদন দেয়নি আইন মন্ত্রণালয়। বাকি খড়সা প্রস্তাবগুলোর অনুমোদন দেয়া হয়েছে। যদিও খসড়ায় জাতীয় সংসদ, সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আইনের মতো ইউপি নির্বাচনে প্রার্থিতা বাতিলের ক্ষমতা ইসির হাতে রেখে খসড়া প্রস্তাব করা হয় ইসির পক্ষ থেকে। ইসির প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয় (আচরণবিধির ৩২ ধারা) যে কোন উৎস থেকে প্রাপ্ত রেকর্ড বা লিখিত প্রতিবেদনে প্রতিদ্বন্দ্বী কোন প্রার্থী বা তার এজেন্ট বিধিমালা লঙ্ঘন করেছে বলে ইসির কাছে প্রতীয়মান হলে তাৎক্ষণিক তদন্ত করে প্রয়োজনে প্রার্থিতা বাতিল করা যাবে। তবে শেষ পর্যন্ত মন্ত্রণালয় ইসির এ প্রস্তাবে সায় দেয়নি। জানা গেছে নির্বাচন বিধিমালা ও আচরণ বিধিমালা গেজেট আকারে প্রকাশের পরই ইউপি নির্বাচনের তফসিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: