২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

দুর্গাপুরে খেলার মাঠের বেহাল দশা ॥ দেখার কেউ নেই


দুর্গাপুরে খেলার মাঠের বেহাল দশা ॥ দেখার কেউ নেই

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুর(নেত্রকোণা) ॥ জেলার দুর্গাপুরে স্বনামধন্য বিরিশিরি পি,সি,নল মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠের বেহাল দশা, দেখার কেউ নেই।

স্কুল কর্তৃপক্ষ স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনকে ৫ম বার মাঠের বিহিত করার জন্য লিখিত অভিযোগ করেও এর কোন সমাধান মেলেনি। অথচ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরো বেশী অগ্রগামী করে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বারবার দেশবাসীর কাছে আহবান জানান। এসবের তোয়াক্কা না করে সোমেশ্বরী নদী হতে প্রতিদিন ৪/৫শত বালুভর্তি ট্রাক মাঠের ভিতর দিয়ে চলাচল করে। যার ফলে স্কুলের ছাত্র/ছাত্রীরা ফুটবল ক্রিকেট সহ বিভিন্ন ধরনের খেলাধূলা করতে না পারায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। যদিও একটি মূল সড়ক আছে যা দিয়ে ট্রাক অনায়াসেই যেতে পারে। তারপরেও তারা সহজে যাওয়ার জন্য স্কুলের মাঠটি ব্যবহার করে শিক্ষার্থীদের খেলাধূলা থেকে বঞ্চিত করছে। স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ ফজলুল হক জানান, ব্যাক্তিগত ভাবেও উনি বালুমহালের কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনকে বার বার তাগিদ করে যাচ্ছেন কিন্তু এর কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না।

গারো ব্যাপ্টিষ্ট কনভেনশন ১৮৯৬ খ্রিস্টাব্দে এই স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত করেছে। সেই থেকে অদ্যাবধি পর্যন্ত স্কুলের ফলাফল উপজেলার অন্যান্য স্কুলের চেয়েও ভাল। স্বনামধন্য মিশনারীজ এই স্কুলটির এত সুন্দর একটি খেলার মাঠ থাকার পরও শিক্ষার্থীরা মাঠটি ব্যবহার করতে পারছেন না।

এ ব্যাপারে স্কুলের নিজস্ব প্যাডে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর ১৫ এপ্রিল ২০১৩, ১২জানুয়ারী ২০১৪, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৪, ১৫ এপ্রিল ২০১৫, ১৮ জানুয়ারী ২০১৬ ইং তারিখে ৫ম বারের মত অভিযোগ দেওয়ার পরও কর্তৃপক্ষ নির্বিকার।

এ অভিযোগগুলো সদয় অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এডভোকেট প্রমোদ মানকিন, প্রতিমন্ত্রী সমাজকল্যান মন্ত্রনালয়, আরিফ খান জয়, উপমন্ত্রী যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়, স্থানীয় সংসদ সদস্য ছবি বিশ্বাস, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ এমদাদুল হক খাঁন, পৌরসভা মেয়র আলহাজ্ব আব্দুস সালাম, ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর বিপ্লব রেমা সহ সবাইকে অবহিত করা হইয়াছে। তারপরও এর কোন সুষ্ঠ সমাধান স্কুল কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত পায়নি। এলাকাবাসীর প্রশ্ন হলো এ বিষয় আসলে দেখার দায়িত্ব কার ?

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: