২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

নানা পদক্ষেপের পরও নিম্নমুখী শেয়ার বাজার


বিশেষ প্রতিনিধি॥ দেশের পুঁজিবাজার উন্নয়নে গত বছর বেশ কিছু পদক্ষেপ নিলেও লাগাতার নিম্নমুখী অবস্থা থেকে ফিরতে পারেনি বাজার সূচক। নতুন বছরে টাকার অঙ্কে লেনদেন বাড়লেও কমছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দর। বিশ্লেষকরা বলছেন, বাজার সম্পর্কে দায়িত্বহীন মন্তব্যই শেয়ারবাজার অস্থিরতার প্রধান কারণ।

বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরাতে এবং নতুন নতুন প্রতিষ্ঠানকে তালিকাভুক্ত করতে গত বছর নেয়া হয় বেশ কিছু পদক্ষেপ। প্রত্যাশা ছিল নতুন বছর ঘুরে দাঁড়াবে দেশের দুই পুঁজিবাজার। কিন্তু গত বছরের ২শ' কোটি টাকার প্রতিদিনকার লেনদেন নতুন বছরের ৫শ' কোটির ঘরে পৌঁছলেও নিম্নমুখী থাকে সবকটি সূচক।

পুঁজিবাজারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে স্টক এক্সচেঞ্জগুলোকে ডিমিউচুয়ালাইজেশন, স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল গঠন, গণপ্রস্তাবের আইন সংস্কার, ডিএসইতে অত্যাধুনিক পদ্ধতির সফটওয়ার ব্যবহারসহ বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে বেশ কিছু সংস্কার করে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশন। কিন্তু এখনও সংস্কারগুলো কার্যকরী না হওয়ায় পুঁজিবাজারের উন্নয়ন প্রত্যাশানুযায়ী হচ্ছে না বলে মনে করেন বিনিয়োগকারীরা।

বিনিয়োগকারীদের মূলধন তুলে নেয়ার প্রবণতা, ডিএসইর সফটওয়ার বিপর্যয় এবং বিভিন্ন ব্যক্তিদের পুঁজিবাজার নিয়ে দায়িত্বহীন মন্তব্য করাই নতুন বছরে পুঁজিবাজারের দরপতনের অন্যতম কারণ বলে মনে করেন পুঁজিবাজার বিশ্লেষক আহমেদ রশিদ লালী। অত্যধিক স্পর্শকাতর এই বাজার উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সব গুলো প্রতিষ্ঠানের সমন্বিত উদ্যোগের পাশাপাশি এ বিষয়ে মন্তব্য করতে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন এই বাজার বিশ্লেষক ।

##

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: