মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৪ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

যুক্তরাজ্যে দলবেঁধে ধর্ষণ ॥ কারাদণ্ড ১২ পাকিস্তানীর

প্রকাশিত : ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

বিডিনিউজ ॥ যুক্তরাজ্যের ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারে এক কিশোরীকে বছরব্যাপী যৌন নির্যাতনের দায়ে ১২ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। দণ্ডিতদের সবাই পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত বলে ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ার পুলিশের বরাত দিয়ে ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এই চক্রের হোতা আরিফ চৌধুরী আদালতে উপস্থিত না থাকায় তার দণ্ড ঘোষণা হয়নি। ২০১২ সালে গ্রেফতার হওয়ার কয়েক মাস পর জামিনে মুক্ত হয়ে তিনি বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে। ব্রাডফোর্ড ক্রাউন কোর্ট সোমবার আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণা করে।

ব্রাডফোর্ডের কাইলি শহরে ১৩ বছর বয়স থেকে শ্বেতাঙ্গ ওই কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে ১১ জনকে দণ্ড দেয় আদালত। অন্যজনের দণ্ড হয়েছে তাকে যৌন নিপীড়নে।

দণ্ডিতরা হলো খালিদ রাজা মাহমুদ (৩৪), তৌকির হোসাইন (২৩), ইয়াসির কবির (২৫), সুফিয়ান জিয়ারাব (২৩), বিল্লাল জিয়ারাব (২১), ইসরার আলী (১৯), নাসির খান (২৪), জাইন আলী (২০), ফয়সাল খান (২৭), সাকিব ইউনিস (২৯), হোসাইন সরদার (১৯) ও মোহাম্মদ আকরাম (৬৩)। এদের সবাইকে সাড়ে তিন বছর থেকে সর্বোচ্চ ২০ বছর কারাগারে কাটাতে হবে। এদের মধ্যে আকরামের পাঁচ বছরের সাজা হয়েছে মেয়েটিকে যৌন নিপীড়নে।

আদালতে শুনানিতে ২০১১ ও ২০১২ সালে ১৩ মাস ধরে ওই স্কুলশিক্ষার্থীর ওপর সংঘটিত যৌন নির্যাতনের চিত্র উঠে আসে। একটি আন্ডারগ্রাউন্ড কার পার্ক ও চার্চের কবরস্থান ছাড়াও একাধিক জায়গায় তাকে ধর্ষণ করা হয়। ওই সময়ে ৭০ বারের বেশি মেয়েটিকে নিয়ে যাওয়া হয় বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়।

মাদক ব্যবসায়ী আরিফ মেয়েটিকে প্রথমে ধর্ষণের পর বন্ধুদের কাছে তাকে নিয়ে আসে বলে ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়। এ সময় আরিফের বয়স ছিল মাত্র ১৫ বছর। ১৩ বছর বয়সে মেয়েটি মাদক চোরাকারবারিদের খপ্পরে পড়ে। নির্যাতনের এক পর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা না করা এবং পুলিশের কাছে ধর্ষিত হওয়ার ঘটনা খুলে বলার সিদ্ধান্ত নেয়।

আরিফ তাকে প্রায়ই মারধর করত এবং বছরব্যাপী অন্যদের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে বাধ্য করেছিল বলে জানান তিনি।

প্রকাশিত : ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

১০/০২/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: