২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ব্যাকটেরিয়ার চোখ


ব্যাকটেরিয়া কিভাবে দেখে? ব্যাকটেরিয়ার কি মানুষের মতো চোখ রয়েছে। অতিক্ষুদ্র আণুবীক্ষিণক প্রাণীটিকে নিয়ে এই প্রশ্ন বিজ্ঞানী মহলে অনেকদিন ধরেই ছিল। বলা চলে, ৩৪০ বছর আগে এ্যান্টন ভন লিয়েনহুক ব্যাকটেরিয়া আবিষ্কারের পর থেকে বিষয়টি নিয়ে মানুষের কৌতূহল ছিল।

লিয়েনহুক ছিলেন একজন ওলন্দাজ কাপড় ব্যবসায়ী। তিনি নিজের অণুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে প্রথম ব্যাকটেরিয়া দেখেছিলেন। ব্রিটেন ও জার্মানির একদল গবেষক এখন বলছেন, তারা শত বছরের পুরনো এই প্রশ্নের একটি জবাব খুঁজে পেয়েছেন। বিজ্ঞান বিষয়ক অনলাইন সাময়িকী ই-লাইফে তারা লিখেছেন, ব্যাকটেরিয়ার দেখার ধরণটি অনেকটি মানুষের দেখার মতোই। ব্যাকটেরিয়ারও চোখ রয়েছে। ব্যাকটেরিয়ার চোখগুলো এতই ক্ষুদ্র যে একে তারা বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম ক্যামেরার লেন্স হিসেবে অভিহিত করেছেন। গবেষক দলের প্রধান লন্ডনের কুইন মেরি ইউনিভার্সিটির মাইক্রোবায়োলজির প্রফেসর কনরাড মিউলেনিক্স বলেছেন, ‘ব্যাকটেরিয়ার দেখার ধরনটি আসলেই চিত্তাকর্ষক।’ মিউলেনিক্স ও তার সহযোগীরা সায়ানো ব্যাকটেরিয়া নিয়ে গবেষণা করেছেন। পথে-ঘাটে বা জলাশয়ের পাড়ে পড়ে থাকা পুরনো শিলাখ-ে এই ব্যাকটেরিয়াগুলো প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। ধারণা করা হয়ে থাকে ২৭০ কোটি বছর আগে এই ব্যাকটেরিয়ার উদ্ভব ঘটেছিল। এ বিষয়ে ইতোপূর্বে পরিচালিত সমীক্ষার ফলে বলা হয়েছিল ব্যাকটেরিয়ার দেহে ফটোসেন্সর রয়েছে যার সাহায্যে ক্ষুদ্র অণুজীবগুলো আলোর উপস্থিতি শনাক্ত করে থাকে। কিন্তু সর্বশেষ সমীক্ষায় বলা হচ্ছে ব্যাকটেরিয়ার পুরো দেহটি লেন্সের মতো আচরণ করে থাকে। -টাইমস অব ইন্ডিয়া

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: