১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বন্দুকযুদ্ধে নিহত মোতাহারের লাশ পড়ে আছে মর্গে


নিজস্ব সংবাদদাতা, কেরানীগঞ্জ, ৯ ফেব্রুয়ারি ॥ র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত মোতাহার হোসেনের লাশ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে দুদিন ধরে পড়ে রয়েছে। আত্মীয়স্বজন বা পরিচিত কেউ তার লাশ নিতে আসেনি। মোতাহার কেরানীগঞ্জের মুগারচরে শিশু আব্দুল্লাহ হত্যা মামলার সন্দেহভাজন প্রধান আসামি ছিল। সোমবার ভোরে চিতাখোলা এলাকায় র‌্যাব-১০-এর একটি টহলদলের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয় মোতাহার। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি ও একটি পালসার মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। পরে ওইদিন দুপুরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই সালাউদ্দিন ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাবিবার উপস্থিতিতে মোতাহারের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির জন্য লাশ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়ে দেয়। এদিন সন্ধ্যায় ময়নাতদন্তের কাজ শেষ হয়।

স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গের ইনচার্জ শ্যামল লাল বলেন, সোমবার সন্ধ্যায় ময়নাতদন্ত শেষ হলেও কেউই তার লাশ নিতে আসেনি। আমরা মরদেহ পুলিশের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছি। মরদেহ হাসপাতালে মর্গে আছে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, আমরা আরও ২/১ দিন অপেক্ষা করব। এ সময়ের মধ্যে লাশ নিতে কেউ না আসলে লাশটিকে আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামে দেয়া হবে।

২৯ জানুয়ারি শুক্রবার দুপুরে কেরানীগঞ্জের রুহিতপুর মুগারচর বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয় শিশু আবদুল্লাহ।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: