১৭ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

এক্সিম ব্যাংকের দুই কর্মকর্তার পদোন্নতি


এক্সিম ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে পদোন্নতি লাভ করেছেন শাহ্ মোঃ আব্দুল বারী। এর আগে তিনি একই ব্যাংকে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ও পরিপালন বিভাগের প্রধান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। শাহ্ মোঃ আব্দুল বারী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ইনস্টিটিউট থেকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করেন এবং ১৯৮৮ সালে ন্যাশনাল ব্যাংকে প্রবেশনারি অফিসার পদে যোগদানের মাধ্যমে ব্যাংকিং কর্মজীবন শুরু করেন।

এক্সিম ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেছেন মোঃ হুমায়ুন কবীর। এর আগে তিনি একই ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও সিএফও হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মোঃ হুমায়ুন কবীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভের পর ১৯৮৪ সালে ন্যাশনাল ব্যাংকে প্রবেশনারি অফিসার হিসেবে যোগদানের মাধ্যমে তাঁর ব্যাংকিং জীবন শুরু করেন। অতপর ১৯৯৯ সালে এক্সিম ব্যাংকের প্রতিষ্ঠালগ্নে এসিসটেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে এই ব্যাংকে যোগদান করেন। =বিজ্ঞপ্তি

বিশ্বের নামীদামী বীমা ব্র্যান্ডের তালিকায় নেই বাংলাদেশ

২০১৬ সালে বিশ্বের নামীদামী ব্রান্ডের র‌্যাংকিংয়ে স্থান পায়নি বাংলাদেশী কোন বীমা কোম্পানি। তবে বাংলাদেশে শাখা অফিস খুলে ব্যবসা করা মার্কিন বীমা কোম্পানি মেটলাইফ আলিকো ও সম্প্রতি ব্যবসার অনুমোদনপ্রাপ্ত ভারতীয় শীর্ষ বীমা কোম্পানি এলআইসি তাতে জায়গা করে নিয়েছে। বিশ্বের মূল্যবান ৫০০ ব্র্যান্ডের ওই র‌্যাংকিংয়ে মেটলাইফের অবস্থান ১৭৪তম। আর ২০৯তম অবস্থানে রয়েছে এলআইসি। এদিকে বিশ্বের মূল্যবান ওই ব্রান্ডের তালিকায় বীমা খাতে শীর্ষ স্থান দখল করেছে জার্মানি কোম্পানি আলিয়াঞ্জ। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার

স্টুডিও রোডশো নিয়ে শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে স্যামসাং

স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ দেশের বিভিন্ন শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে উৎসাহমূলক রোডশো আয়োজন করেছে। এই উদ্যোগের মাধ্যমে স্যামসাং বিশ্বাস করে যে, প্রথমবারের মতো স্যামসাং মোবাইল ফোনের প্রোডাক্ট প্যাকেজিং (অথবা ইউনিট বক্স) বাংলাদেশে ডিজাইন হবে এবং বাংলাদেশের জন্য ডিজাইন হবে। স্যামসাং স্টুডিও’র প্রতিযোগীরা যত খুশি তত ডিজাইন প্রতিযোগিতার অনলাইন পোর্টাল -এ ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ পর্যন্ত জমা দিতে পারবেন। -বিজ্ঞপ্তি