২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ভারত-শ্রীলঙ্কা সেমির লড়াই আজ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চলমান অনুর্ধ ১৯ বিশ্বকাপের শেষ পর্যায়ের লড়াই উপস্থিত। এবার ফাইনালে ওঠার সুযোগ। সেই সুযোগটা প্রথমেই পাচ্ছে অন্যতম ফেবারিট ভারত অনুর্ধ ১৯ ও শ্রীলঙ্কা অনুর্ধ ১৯ দল। আজ মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথম সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে এ দুটি দল। সকাল ৯টায় ম্যাচটি শুরু হবে।

এখন পর্যন্ত চলতি আসরে দুর্দান্ত খেলেছে ভারতের যুবারা। এবার বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম ফেবারিট তকমাটাও পেয়ে গেছে তারা। কারণ প্রতি ম্যাচেই প্রতিপক্ষকে কোন ধরনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগটাও দেয়নি তারা। বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে দারুণ শক্তিধর ভারতীয় দল। আর সেই সুবাদেই কোয়ার্টার ফ্ইানাল পর্যন্ত প্রতিপক্ষ বোলারদের জন্য দারুণ চ্যালেঞ্জ হয়েছে ভারতীয় যুবারা। এবার আরেকবার জ্বলে ওঠার সুযোগ তাদের। গ্রুপ পর্বের সব ম্যাচ মিরপুরে খেলে এখানকার উইকেট সম্পর্কেও একটা ভাল ধারণা হয়ে গেছে তাদের। তিনবার যুব বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছে দলটি। সর্বশেষ ২০১২ সালেও শিরোপা জয় করে তারা। তবে গত বিশ্বকাপে পারেনি। এবার সে কারণে শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশন ভারতের জন্য। সে মিশনে এখন পর্যন্ত অন্যতম ফেবারিট হিসেবে নিজেদের প্রমাণও করতে পেরেছে। আরেকটি ধাপ পেরোতে পারলেই সবার আগে ফাইনালে পা রাখবে ভারতীয় যুবারা।

২০০০ সালে ঘরের মাটিতে যুব বিশ্বকাপের তৃতীয় আসর আয়োজন করেছিল শ্রীলঙ্কা। সেবারই নিজেদের সেরা সাফল্য পেয়েছিল দলটি। প্রথমবারের মতো উঠেছিল ফাইনালে। কিন্তু শিরোপা জয়ের স্বপ্ন পূরণ হয়নি। ভারতের কাছেই ৬ উইকেটে হেরে গিয়েছিল। সেবারই ভারত প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয়। ২০০৬ সালে দ্বিতীয়বার বিশ্বকাপ আয়োজন করে তেমন কিছুই করতে পারেনি লঙ্কান যুবারা। এবার অবশ্য গ্রুপ পর্বে একটি ম্যাচ হেরেছে তারা পাকিস্তানের বিপক্ষে। গ্রুপ রানার্সআপ হিসেবেই কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে আসে। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দারুণ জয়ে তারাও নিজেদের সামর্থ্য পূরণ করেছে। এবার দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে ওঠার লড়াই তাদের।

স্বর্ণজয়ী মাহফুজাকে অভিনন্দন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সাউথ এশিয়ান গেমসে (এসএ গেমস) ১০০ ও ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে স্বর্ণপদক জয় এবং নতুন রেকর্ড সৃষ্টিকারী বাংলাদেশ দলের মহিলা সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শীলাকে এ্যাফিলিয়েটেড সুইমিং ক্লাব এ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এ্যাফিলিয়েটেড সুইমিং ক্লাব এ্যাসোসিয়েশন আশা করছে, শীলার এই স্বর্ণপদক জয় বাংলাদেশের সাঁতার অঙ্গনকে আরও সমৃদ্ধ করবে। ২০১০ সালের ঢাকার এসএস গেমস ব্যতীত সাউথ এশিয়ান গেমসের সব আসরেই বাংলাদেশ স্বর্ণ জিতেছে। অতএব সাঁতার অঙ্গন বরাবরই ক্রীড়াঙ্গনের শীর্ষেই অবস্থান করছে। সেইসঙ্গে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: