মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

জামালপুরে আলবদররা হিরুকে ধরে আনার পর আর সন্ধান মেলেনি

প্রকাশিত : ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৬
  • যুদ্ধাপরাধী বিচার
  • শাহিদুর রহমানের জবানবন্দী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত জামালপুরের আলবদর বাহিনীর উদ্যোক্তা আশরাফ হোসেনসহ ৮ রাজাকারের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের ২১তম সাক্ষী মোঃ শাহিদুর রহমান খান জবানবন্দী প্রদান করেছেন। জবানবন্দীতে তিনি বলেন, রাজকাররা আমাদের কলেজের ছাত্র হারুনুর রশিদ খান ওরফে হিরুকে ধরে নিয়ে যাওয়ার পর আর তার কোন হদিস পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে শরীয়তপুরের পলাতক রাজাকার ইদ্রিস আলীর বিরুদ্ধে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। নেত্রকোনার দুই রাজাকার হেদায়েত উল্লাহ ও এনায়েত উল্লাহর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে ট্রাইব্যুনাল। চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ সোমবার এ আদেশগুলো প্রদান করেছেন।

জামালপুরের আলবদর বাহিনীর উদ্যোক্তা আশরাফ হোসেনসহ ৮ রাজাকারের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের ২১তম সাক্ষী মোঃ শাহিদুর রহমান জবানবন্দী শেষে আসামি পক্ষ তাকে জেরা করেছেন। পরবর্তী সাক্ষীর জন্য ১১ ফেব্রুয়ারি দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। এ সময় সাক্ষীকে সাক্ষ্যদানে সহযোগিতা করেন প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল, প্রসিকিউটর রেজিয়া সুলতানা চমন। আসামি পক্ষে ছিলেন এ্যাডভোকেট আব্দুস সোবহান তরফদার ও এ্যাডভোকেট এস এম মিজানুর রহমান।

সাক্ষী তার জবানবন্দীতে বলেন, আমার নাম মোঃ শাহিদুর রহমান খান। আমার বর্তমান আনুমানিক বয়স ৭৩ বছর। আমার ঠিকানা গ্রাম-ভাটারা, উপজেলা-সরিষাবাড়ী, জেলা-জামালপুর। আমার বর্তমান ঠিকানা শহীদ হিরু সড়ক, জামালপুর পৌরসভা, জামালপুর। আমি বর্তমানে একজন কলেজ শিক্ষক।

সাক্ষী তার জবানবন্দীতে আরও বলেন, আলবদরের লোকেরা আমাদের আশেক মাহমুদ কলেজের ছাত্র হারুনুর রশিদ খান ওরফে হিরুকে ধরে আলবদর ক্যাম্পে নিয়ে আসে। হিরু আমার প্রতিবেশী থাকায় আমার একজন সহকর্মী শিক্ষককে নিয়ে আলবদর ক্যাম্পে যাই। আলবদর আব্দুল খালেক আমাদের কাছে এলে জানতে চাই হিরুকে কেন ধরে এনেছ।

শরীয়তপুরের পলাতক রাজাকারের বিরুদ্ধে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের নির্দেশ ॥ শরীয়তপুরের পলাতক রাজাকার ইদ্রিস আলীর বিরুদ্ধে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল-১। একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের চার অভিযোগে শরীয়তপুরের দুই রাজাকার সোলায়মান মোল্লা (৮৪) ও ইদ্রিস আলী সরদার ওরফে গাজী ইদ্রিসের (৬৭) বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন চূড়ান্ত করেছে তদন্ত সংস্থা।

নেত্রকোনার দুই রাজাকারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ॥ মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে নেত্রকোনার দুই রাজাকার হেদায়েত উল্লাহ ও এনায়েত উল্লাহর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে ট্রাইব্যুনাল।

প্রকাশিত : ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

০৯/০২/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: