২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পটিয়ায় সওজের জায়গা ভরাট করে বালু ব্যবসা


নিজস্ব সংবাদদাতা, পটিয়া, ৭ ফেব্রুয়ারি ॥ সড়ক ও জনপথ (সওজ) এর জায়গা ভরাট করে চট্টগ্রামের পটিয়ায় এক প্রভাবশালী বালু ব্যবসা শুরু করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার রাতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার আরকান মহাসড়কের পটিয়া ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প এলাকায় সওজের জায়গা ভরাট করেছে পৌরসভা ছাত্রলীগের প্রাক্তন যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নাল আবেদীন। শিল্প এলাকায় রাতারাতি সওজের জায়গা ভরাট করে বালু ব্যবসা করার পাঁয়তারা করায় সওজের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ ইউনুচ মিয়া রবিবার দুপুরে থানা পুলিশকে অবহিত করে আইনগত সহযোগিতা চেয়েছেন।

সওজ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভা ছাত্রলীগের প্রাক্তন যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নাল আবেদীন ছাড়াও আজিজুল হক, মোঃ হানিফ, মোঃ নাসির, মোঃ ফারুকসহ বিশাল একটি সিন্ডিকেট সওজের জায়গা দখল করে ইন্দ্রপুল চাঁনখালী খালের পাশে বালু ব্যবসা করার পাঁয়তারা শুরু করে। সওজের জায়গাটি দীর্ঘদিন ওয়াহিদ সল্ট নামের একটি প্রতিষ্ঠান অবৈধভাবে দখল করে রাখলেও গত দেড় বছর আগে সওজ কর্তৃপক্ষ উচ্ছেদ করে জায়গাটি উদ্ধার করে। ওয়াহিদ সল্টের মালিকদের কাছ থেকে ভাড়া নেয়ার অজুহাতে ছাত্রলীগ নেতাসহ অন্যরা সেখানে বর্তমানে কৌশলে বালু ব্যবসা শুরু করছে। এদিকে, ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প এলাকায় চঁাঁনখালী খালে বালুর ড্রেজার এনে লবণ শিল্পের কাঁচামালবাহী ট্রলার চলাচলে ব্যাঘাত করায় লবণ শিল্প মালিকরা চরমভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। লবণ শিল্প মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক আল্লাই বলেন, চাঁনখালী খালে বালুর ড্রেজার অবস্থান করলে লবণ শিল্পের কাঁচামালবাহী ট্রলার চলাচলে ব্যাঘাত ঘটবে। এখানে কোন অবস্থাতেই বালুর ব্যবসা করতে দেয়া হবে না। সওজের পটিয়া উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ ইউনুচ বলেন, সওজের জায়গা দখল করে বালুর ব্যবসা করার অভিযোগ পাওয়ার পর আইনগত সহায়তার জন্য থানা পুলিশের শরণাপন্ন হয়েছি। সওজের জায়গায় বালুর ব্যবসা কিংবা অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করা হলে তা উচ্ছেদ করা হবে। এ ব্যাপারে ছাত্রলীগ নেতা জয়নাল আবেদীন বলেন, জায়গার মালিক ওয়াহিদুল্লাহ নামের এক ব্যক্তি। ওই ব্যক্তির কাছ থেকে গত সোমবার ভাড়ানামায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। জায়গা সওজের হলেও তা নিয়ে মালিকের সঙ্গে আদালতে মামলা বিচারাধীন এবং লবণ শিল্প এলাকায় ক্ষতি হয় এমন কোন কাজ আমরা করব না।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: