২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

তৃতীয় দিনে জোড়া স্বর্ণ জয় বাংলাদেশের


তৃতীয় দিনে জোড়া স্বর্ণ  জয় বাংলাদেশের

মোঃ মামুন রশীদ ॥ দারুণ একটা দিন কেটেছে বাংলা-দেশের। রবিবার সাউথ এশিয়ান গেমসের (এসএ গেমস) তৃতীয় দিন দুটি স্বর্ণপদক জিতেছে বাংলাদেশ। দুটিই এসেছে বাংলাদেশের মহিলা এ্যাথলেটের থেকে। এছাড়াও বিভিন্ন ইভেন্টে এসেছে পদকের সাফল্য। আর এই সফলতার পেছনে সিংহভাগ অবদান মহিলা ক্রীড়াবিদদের। বাংলাদেশের জন্য চলমান আসরের প্রথম স্বর্ণ আসে মহিলা ভারোত্তোলন থেকে। ৬৩ কেজি শ্রেণীতে সেরা হন মাবিয়া আক্তার সিমান্ত। আর দ্বিতীয় স্বর্ণ সাঁতার থেকে। মেয়েদের ১০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে স্বর্ণ জয় করেন মাহফুজা খাতুন। একই দিনে বাংলাদেশ মহিলা ফুটবল দলও

জয় তুলে নিয়েছে। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে সাবিনা খাতুনরা ২-১ গোলে হারিয়ে দেয় শ্রীলঙ্কা মহিলা ফুটবল দলকে।

এবার এসএ গেমস থেকে কোন স্বর্ণপদক জয়ের আশা জানাতে পারেনি বাংলাদেশের কোন ফেডারেশন। তাই অংশগ্রহণ করে নিজেদের যোগ্যতা বাড়ানোটাই যেন মূল লক্ষ্য ছিল। দ্বিতীয় দিন পর্যন্ত এমনটাই দেখা গেছে। তবে তৃতীয় দিন অপ্রত্যাশিতভাবেই স্বর্ণ জিতে দেশকে গৌরব এনে দেন মহিলা ভারোত্তোলক সিমান্ত। মেয়েদের ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণীতে স্ন্যাচে ৬৭ ও ক্লিন এ্যান্ড জার্কে ৮২ মোট ১৪৯ কেজি তুলে স্বর্ণ জেতেন সিমান্ত। আর শ্রীলঙ্কার আয়েশা বিনোদিনি ছিলেন অনেক পিছিয়ে। তিনি (৬৩ ও ৭৫) মোট ১৩৮ কেজি তুলে পান রৌপ্য পদক। এছাড়া নেপালের জুন মায়া (৫৫ ও ৭০) মোট ১২৫ কেজি তুলে ব্রোঞ্জ পদক জেতেন। অথচ হাতের ব্যথার কারণে এদিন প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার বিষয়টিও শঙ্কার মধ্যে ছিল সিমান্তের। স্বর্ণ জয়ের পর এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘আমার কাছে অবাক লাগছে যে আমি স্বর্ণ জিতেছি। আশা ছিল রৌপ্য বা ব্রোঞ্জ পাব। কিন্তু ভাগ্যক্রমে গোল্ড পেয়ে গেলাম। খুবই ভাল লাগছে যে বাংলাদেশকে একটি সোনার পদক উপহার দিতে পেরেছি।’ একই দিনে মেয়েদের ৫৮ কেজি ওজন শ্রেণীতে বাংলাদেশের হয়ে রৌপ্য পদক জেতেন ফুলপতি চাকমা। স্ন্যাচে ৬৩ ও ক্লিন এ্যান্ড জার্কে ৮১ মোট ১৪৪ কেজি তুলে দ্বিতীয় হন তিনি। এ বিভাগে (৮০ ও ১০৭) মোট ১৮৭ কেজি তুলে স্বর্ণ জেতেন স্বাগতিক ভারতের কমলা শ্রেষ্ঠ।

সিমান্তের হাত ধরে প্রথম স্বর্ণ আসার কিছুক্ষণ পরেই বাংলাদেশের খাতায় যোগ হয় আরেকটি স্বর্ণ পদক। মহিলাদের ২০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে সবাইকে অবাক করে দিয়ে স্বর্ণ জয় করেন মাহফুজা। গুয়াহাটির ডক্টর জাকির হোসেন এ্যাকুয়াটিক কমপ্লেক্সে তিনি এ ইভেন্টে ১ মিনিট ১৭.৮৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ জয় করেন। পেছনে ফেলেন পাকিস্তান ও ভারতের প্রতিদ্বন্দ্বীকে। রোমানা এ ইভেন্টে ১ মিনিট ১৯.৬৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে পঞ্চম হন। তবে রোমানা সাফল্য পেয়েছেন ২০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে। তিনি জিতেছেন ব্রোঞ্জ। ছেলেদের ১৫০০ মিটার ফ্রি স্টাইলে ১৭ মিনিট ১১.৯৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রোঞ্জ জেতেন বাংলাদেশের মাহফিজুর রহমান। ব্রেস্ট স্ট্রোকের ছেলেদের ইভেন্টেও ২০০ মিটারে ব্রোঞ্জ পেয়েছে বাংলাদেশ। সেটি জিতেছেন মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম। দিনের সর্বশেষ সাফল্যটি এসেছে মেয়েদের ফুটবলে। প্রথম ম্যাচে নেপালের কাছে ৩-০ গোলে হারলেও রবিবার শিলংয়ের জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়ামে কৃষ্ণা রানীর জোড়া গোলে ২-১ গোলে শ্রীলঙ্কাকে হারায় সাবিনা খাতুনরা। ম্যাচের ৬৯ ও ৮৬ মিনিটে গোল করেন কৃষ্ণা। আর ৭০ মিনিটে একটি গোল পরিশোধ করে শ্রীলঙ্কা।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: