২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শেরপুরে ঘাড় মটকে হত্যা করা হয় স্কুলছাত্রকে


নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর, ৭ ফেব্রুয়ারি ॥ অবশেষে হত্যা-আত্মহত্যার ধূম্রজাল কেটে শেরপুরে সুপারি চুরির অজুহাতে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র নুরে আলমকে ‘ঘাড় মটকে হত্যা’র আলামত পাওয়া গেছে ময়নাতদন্ত রিপোর্টে। ৭ ফেব্রুয়ারি রবিবার দুপুরে জেলা সদর হাসপাতাল থেকে তদন্ত কর্তৃপক্ষ বরাবর এমনই ডাক্তারি মতামত দিয়ে ওই রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে। আর হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পুলিশও এগোচ্ছে সেই গতিতে। ইতোমধ্যে আসামিদের গ্রেফতারে জাল ফেলা হয়েছে। এ নিয়ে নুরে আলমের পরিবারে আপাতত কিছুটা স্বস্তি ফিরে এলেও মামলার ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কা কাটেনি তাদের। জেলা সদর হাসপাতালের আরএমও ডাঃ মোবারক হোসেন রবিবার দুপুরে দৈনিক জনকণ্ঠকে জানান, নুরে আলমের ময়নাতদন্ত রিপোর্টে আংশিক মতামত দেয়া হয়েছে। ভিসেরা রিপোর্ট প্রাপ্তির পর চূড়ান্ত মতামত দেয়া হবে। তবে প্রাথমিকভাবে মতামতে বলা হয়েছে, ঘাড় মটকানোর কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া মৃতের শরীরে ইন্টারনাল-এক্সটার্নাল কিছু জখমও রয়েছে। আর অপমৃত্যুর মামলা ও হত্যা মামলার একই তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার এসআই জীবন চন্দ্র বর্মণ জানান, ঘাড়ে, কানে ও হাঁটুতে কিছু জখম পাওয়ায় সুরতহাল রিপোর্টে তা উল্লেখ করেছি। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলেই পরিষ্কার হওয়া যাবে নুরে আলমের মৃত্যুর কারণÑএ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তে প্রত্যক্ষ সাক্ষ্য না পাওয়া গেলেও রাতে নুরে আলমের চিৎকার শুনেছেন এমন সাক্ষ্য পাওয়া গেছে।