মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

শিল্পকলায় আরশিনগরের ‘সে রাতে পূর্ণিমা ছিল’ মঞ্চায়ণ আজ

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, ০৪:৪৮ পি. এম.
শিল্পকলায় আরশিনগরের ‘সে রাতে পূর্ণিমা ছিল’ মঞ্চায়ণ আজ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আরশিনগরের প্রযোজনায় আজ রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে মঞ্চস্থ হবে নাটক ‘সে রাতে পূর্ণিমা ছিল’। শহীদুল জহিরের উপন্যাস অবলম্বনে নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন রেজা আরিফ। নির্দেশক জানান, প্রেম ও সামষ্টিক বিহ্বলতার ওপর ভিত্তি করে বিন্যস্ত হয়েছে নাটকটির কাহিনী। সুহাসিনী গ্রামের মফিজুদ্দিন সপরিবারে নিহত হওয়ার পর কোনো এক ভাদ্রমাসের পূর্ণিমা চাঁদেও মোহিনী মায়ায় সুহাসিনী গ্রামের লোকেরা মফিজুদ্দিন মিয়ার বার্ধক্য, যৌবন, কৈশোর, শৈশব কিংবা তারও আগে তার জন্মের পর অথবা তার মায়ের সুহাসিনীতে আগমন সম্পর্কিত বাস্তব ও অবাস্তব গল্পের মিথ নির্মাণ করে। তারা বলে, কীভাবে আকালু তার বোবা স্ত্রীকে কুড়িয়ে পেয়েছিল, কীভাবে এক পূর্ণিমা রাতে জন্ম হয়েছিল মফিজুদ্দিনের এবং কী অদ্ভুত মরণও হয়েছিল এক পূর্ণিমা রাতে। সুহাসিনীর লোকেরা আরও বলে, কী কৌশলে সে অর্জন করেছিল গ্রামের সামন্ত প্রভু আলী আসগর মিয়ার মেয়ে চন্দ্রভানকে, কীভাবে খুনিদের হাত থেকে সিরাজগঞ্জ শহরের এক দরিদ্র বিধবা গণিকা নয়নতারা জীবন বাঁচিয়েছিল মফিজুদ্দিনের। গল্পের শেষ হয় মফিজুদ্দিনের ছেলে নাসির উদ্দিন এবং দুলালীর প্রেম ও বিরহগাথার মধ্য দিয়ে। এভাবেই এগিয়ে যায় নাটকটির কাহিনী। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইভান, সোহেল, জোবায়দুর, বাপ্পা, ইউনুস, পার্থ, ডেইজি, জুম্মন, রূপা প্রমুখ।

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, ০৪:৪৮ পি. এম.

০৭/০২/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

সংস্কৃতি অঙ্গন



শীর্ষ সংবাদ: