মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ আগস্ট ২০১৭, ৬ ভাদ্র ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বাংলাদেশের পর সেমিতে ভারত

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অনুর্ধ-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলা শুক্রবারই নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ যুব দল। শনিবার নামিবিয়াকে ১৯৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ভারতও সেমিতে খেলা নিশ্চিত করে নিয়েছে।

শুরুতে টস জিতে ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ব্যাট করে বিশাল সংগ্রহ গড়ে ভারত। ৬ উইকেটে ৩৪৯ রান করে। সেঞ্চুরি করেন ওপেনার রিশাব পেন্ট। ৯৬ বলে ১৪ চার ও ২ ছক্কায় ১১১ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলেন পেন্ট। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৬ রান করেন সরফরাজ খান। আর আরমান জাফর ৬৪ রান করেন। নামিবিয়ার পক্ষে ৩ উইকেট নেন কোয়েটজি। জবাবে খেলতে নেমে ৩ উইকেট করে নেয়া ডাগার ও আনমলপ্রিতের বোলিং তোপে টিকতেই পারেনি নামিবিয়া। ৩৯ ওভারে ১৫২ রানেই গুটিয়ে যায় তারা। সর্বোচ্চ ৩৩ রান করেন নিকো ডেভিন।

ম্যাচ জেতার খুশি আছে। এর সঙ্গে ভারত অধিনায়ক ইশান কিশানের ঝুলিতে শনিবারই যুক্ত হয়েছে আরেকটি আনন্দ। সেটি হচ্ছে, আইপিএলে খেলার সুযোগ পেয়েছেন। শনিবার বেঙ্গালুরুতে শুরু হয়েছে আইপিএলের নবম আসরের নিলাম। এই আসরে ভারতীয় অনুর্ধ-১৯ দলের তরুণ ক্রিকেটার ইশানের সঙ্গে আরও দুই ক্রিকেটার আইপিএলে খেলার সুযোগ পেয়েছেন। ওই দুই ক্রিকেটার হলেন, ওপেনার রিশাব পেন্ট ও সরফরাজ খান। তিনজনই বাংলাদেশে চলমান ১১তম আইসিসি অনুর্ধ-১৯ বিশ্বকাপে খেলছেন।

৩৫ লাখ রুপীতে ইশান কিসানকে কিনেছে গুজরাট লায়ন্স। রিশাব পেন্টকে ১ কোটি ৯০ লাখ রুপীর বিনিময়ে দলে ভিড়িয়েছে দিল্লী ডেয়ারডেভিলস। আর রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরে ৫০ লাখ রুপীতে সরফরাজ খান যুক্ত হয়েছেন।

কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচটি শেষে তাই ভারতীয় অধিনায়ককে আইপিএল নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দিতে হলো। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসেন ভারতীয় দলের অধিনায়ক ইশান কিসান। তিনি আইপিএলে দল পাওয়া নিয়ে জানতে চাইলে বলেন, ‘আমরা ম্যাচ শেষে শুনেছি। অবশ্যই এটা ভাল লাগার মতোই খবর। তবে আমাদের ফোকাস এখন এই দিকে, আইপিএল নিয়ে কিছু ভাবছি না।’

ইশান যতই বলুন, আইপিএল নিয়ে নয়, ভাবছেন অনুর্ধ-১৯ বিশ্বকাপ নিয়ে; একটু হলেও আইপিএল ভাবনা মাথায় কাজ করবে। বিশ্বের সেরা ক্রিকেটারদের সঙ্গে যে থাকবেন। তবে এ ভুত কোনভাবেই মাথায় এখনই ঢুকিয়ে নিতে চান না ইশান।

সেমিফাইনালে ইংল্যান্ড নয়ত শ্রীলঙ্কা হবে প্রতিপক্ষ, আজ যে এ দুই দলের মধ্যকার ম্যাচটি হবে, সেদিকেই ভারতের দৃষ্টি থাকবে। ম্যাচটিতে যে দলই জিতুক, তাদের খেলা পুঙ্খানুভাবে পর্যবেক্ষণ করবেন ভারত যুবারা। সেমিতে যে প্রতিপক্ষের দুর্বলতা বের করেই জয় তুলে নিতে হবে। তিনবার যুব বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত। এবার চতুর্থ শিরোপা জেতার স্বপ্ন সফল করতে হলে ফাইনালে তো আগে যেতে হবে। নামিবিয়াকে উড়িয়ে দেয়ার পর এখন তাই নিয়ে ভাবছে ভারত যুব দল।

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৬

০৭/০২/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: