২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

চাল উৎপাদনের ধারা অব্যাহত থাকলে ঘাটতি থাকবে না


নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ৫ ফেব্রুয়ারি ॥ ২০৫০ সালে দেশের বর্ধিত জনসংখ্যার খাদ্য চাহিদা পূরণের জন্য চালের প্রয়োজন হবে ৪৪.৬ মেট্রিক টন। আর গত পাঁচ বছরের চালের উৎপাদন বৃদ্ধির হার অব্যাহত থাকলে এ পরিমাণ চাল উৎপাদন করেও দেশে ২ কোটি ৬০ লাখ টন চাল থাকবে। বিভিন্ন খাতভিত্তিক সমীক্ষায় দেখা যায়, বর্ধিত হারে চাল উৎপাদনের সম্ভাবনা যেমন আছে তেমনি আছে নানা প্রতিবন্ধকতাও। ধান বিজ্ঞানী ও সম্প্রসারণবিদদের সম্মিলিত কর্মপ্রয়াস অব্যাহত থাকলে সকল প্রতিবন্ধকতা অতিক্রম করে দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নেয়া সম্ভব। শনিবার গাজীপুরে ব্রি মিলনায়তনে ২৪তম ধান গবেষণা ও সম্প্রসারণ কর্মশালা এবং ব্রি বার্ষিক গবেষণা পর্যালোচনা কর্মশালা ২০১৪-১৫ এর উদ্বোধনী সভায় বিজ্ঞানী ও বিশেষজ্ঞরা এ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। ছয় দিনব্যাপী কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব শ্যামল কান্তি ঘোষ। ব্রির মহাপরিচালক ড. জীবন কৃষ্ণ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুল ইসলাম লস্কর, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান আবুল কালাম আযাদ এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মহাপরিচালক মোঃ হামিদুর রহমান। অনুষ্ঠানে ধান গবেষণা ও সম্প্রসারণ কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্রির পরিচালক (প্রশাসন ও সাধারণ পরিচর্যা) ড. শাহজাহান কবীর। অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ দেন ব্রির পরিচালক (গবেষণা) ড. আনছার আলী।

যারা শিশুদের জিম্মি করে, তারা মানুষ নয় ॥ চুমকি

নিজস্ব সংবাদদাতা, কেরানীগঞ্জ, ৬ ফেব্রুয়ারি ॥ জায়গা-জমি ও ব্যক্তি আক্রোশে যারা শিশুদের জিম্মি করে তারা মানুষ নয়। এ অপরাধীদের প্রতিহত করতে সরকারের পাশাপাশি জনসচেতনতা বাড়াতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয় না। যারা শিশু আব্দুল্লাহকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে তাদের ছাড় দেয়া হবে না। অপরাধী পৃথিবীর যেখানেই থাকুক না কেন তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নেয়া হবে। শনিবার কেরানীগঞ্জের মুগারচরে অপহরণকারীদের হাতে নিহত স্কুলছাত্র আব্দুল্লাহর পরিবারকে সান্ত¡না দিতে গিয়ে মহিলা ও শিশু বিষয়কমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এ কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু অধিদফতরের পরিচালক ড. আবুল হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিন আহম্মেদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল বাশার মোহাম্মদ ফকরুজ্জামান ও রুহিতপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আলী।

এদিকে মন্ত্রী আসার খবর পেয়ে সকাল থেকেই এলাকাবাসী ও পশ্চিম মুগারচর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহপাঠীরা খুনীদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে।