১৩ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

কেশবপুরে ১২ দিন পর আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের তালা খুলে দেয়া হলো


নিজস্ব সংবাদদাতা, কেশবপুর ॥ টানা ১২ দিন পর শুক্রবার বিকেলে কেশবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের তালা খুলে দেয়া হয়েছে। কোন কারনে আওয়ামী লীগ অফিসে তাল লাগানো হয়নি এমনটি দাবি করে দলের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। নগ গঠিত ইউনিয়নের কমিটি গঠন নিয়ে দলের দুটি গ্রুপের ভেতর দ্বন্দ্ব, মিছিল, সমাবেশ, বিক্ষোভ চলে আসছিল গত বারদিন ধরে।

শুক্রবার বিকেলে উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি তপন কুমার ঘোষ মন্টুর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান বলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দলের কেন্দ্রীয় নের্তৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন স্থানে তার বিরুদ্ধে কার্যালয়ে তালা মারার যে অভিযোগ এনে অপপ্রচার করেছেন তা সঠিক নয়। দপ্তর সম্পাদক হিসেবে কার্যালয়ের চাবি তার কাছেই থাকে। কার্যালয়ে একটি তালাই দেওয়া ছিল যা পূর্বেও দেওয়া থাকতো। তিনি দলীয় প্রয়োজনে ঢাকায় থাকায় কার্যালয় খোলা সম্ভব হয়নি। এখন থেকে প্রতিদিন বিকাল ৩টার পর দলীয় কার্যালয় খোলা থাকবে। তবে দলের প্রয়োজনে সারা দিনও কার্যালয় খোলা রাখা যেতে পারে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম পিটু, পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম মোড়ল, মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপিকা রেবা ভৌমিক, দলের যুগ্ম সম্পাদক নাসিমা সাদেক, সাংগঠনিক সম্পাদক গৌতম রায়, সদস্য হাসান সাদেক, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক পৌর কাউন্সিলর শহীদুজ্জামান শহীদ প্রমুখ।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ওই কার্যালয়ে প্রবেশের ব্যাপারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দপ্তর সম্পাদক আরও বলেন, দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে সাধারণ নেতা কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে তাদের অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছেন। এছাড়া তাদের অব্যহতি চেয়ে উপজেলা কমিটির ৬৭ জনের মধ্যে ৪৮ জন সদস্য স্বাক্ষরিত একটি আবেদনপত্র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের নিকট দেওয়া হয়েছে। তাদের সম্পর্কে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ যে সিদ্ধান্ত দেবেন তাই মেনে নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জানুয়ারি কেশবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিন ও সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা কার্যনির্বাহী কমিটির কোন সভা ছাড়াই তাদের পছন্দের ব্যক্তিদের নিয়ে উপজেলার নবগঠিত ত্রিমোহিনী, বিদ্যানন্দকাটি, সাতবাড়িয়া ও হাসানপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করার পর দিন থেকে কার্যালয়ের তালা খোলা হয়নি এবং তাদের অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে বিক্ষোভ ও সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়। সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের পক্ষ থেকেও পাল্লা মিছিল সমাবেশ করা হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: