মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

জয় দিয়ে শুরু চান সাবিনারা

প্রকাশিত : ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, ১২:২৩ এ. এম.
  • এসএ গেমস মহিলা ফুটবল
  • বাংলাদেশ-নেপাল ম্যাচ আজ শিলংয়ে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ একটা সময় ছিল বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দল কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে গেলেই ভয়ে কুঁকড়ে যেত। আত্মবিশ্বাস থাকত তলানিতে। গোল হজম করত হালি হালি। বাংলাদেশী ফুটবলপ্রেমীরাই নাক সিটকাতেন, হাসাহাসি করতেন মহিলা দলের খেলা নিয়ে। কিন্তু সেই দিন এখন আর নেই। প্রেক্ষাপট এখন বদলে গেছে। বাংলাদেশের মহিলা ফুটবল দল এখন অনেক পরিণত, অনেক শক্তিশালী, যা প্রতিপক্ষ দলগুলোর কাছে উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসএ গেমসে আজ বাংলাদেশ মহিলা দল তাদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে হিমালয়ের দেশ নেপালের। শিলংয়ের জেএলএন স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায়। ২০১০ এসএ গেমস ফুটবলে নেপালের কাছে ০-১ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। আজকের ম্যাচে জিতলে ছয় বছর আগে হারের প্রতিশোধটা কড়ায়-গ-ায় নিতে পারবে বাংলাদেশ মহিলা দল।

এই ম্যাচের সময়সূচী নিয়ে কিছুটা হলেও ঝামেলায় পড়েছে বাংলাদেশ দল। এসএ গেমস ফুটবলে বাংলাদেশ পুরুষ ফুটবল দলের খেলাগুলো আগের সূচী অনুযায়ীই হবে বলে তাদের কোন ঝামেলা পোহাতে হবে না। কিন্তু হঠাৎ করে সূচী পরিবর্তন করায় বেকায়দায় পড়ে গেছে বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দল।

আফগানিস্তান না থাকাতে টুর্নামেন্টের ফরমেটেও এসেছে পরিবর্তন। এবার খেলা হবে লীগ পদ্ধতিতে (মোট দল ৫টি)। সিঙ্গেল লীগ হওয়ার পর পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুই দল খেলবে ফাইনালে। ফলে সেমিফাইনাল বলে কিছু থাকছে না। বাংলাদেশের খেলাগুলো হচ্ছেÑ ৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টায় নেপাল, ৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ভারত, ৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মালদ্বীপ এবং ১৩ ফেব্রুয়ারি দুপুর আড়াইটায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। জানা গেছে, হঠাৎই সূচীতে পরিবর্তন আনে আয়োজক ভারত। পূর্বের সূচী অনুযায়ী বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ছিল ৯ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু সূচীতে পরিবর্তন হওয়াতে ৫ ফেব্রুয়ারিতেই প্রথম ম্যাচটা খেলতে হবে তাদের। ৯ তারিখের কথা ভেবে বাংলাদেশ দলের ভারত যাওয়ার কথা ছিল ৪ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু তারিখ এগিয়ে আসাতে বিপাকে পড়ে যায় দল। কেননা ৪ তারিখ ঢাকা থেকে রওনা হয়ে পরের দিন সকালেই প্রথম ম্যাচটা খেলতে হবে! তাই আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নেয়া এবং ভ্রমণক্লান্তি কাটিয়ে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেয়ার সেই সুযোগ পাওয়া সম্ভব নয়।

এ সঙ্কট উত্তরণে তৎপর হয় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে)। তারা বাংলাদেশ অলিম্পিক এ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) কাছে একটি আবেদনপত্র পাঠায়। সেখানে ৪ তারিখের পরিবর্তে একদিন আগেÑ অর্থাৎ ৩ ফেব্রুয়ারি মহিলা ফুটবল দলকে পাঠানোর জন্য আবেদন করে। সে আবেদনে সাড়া দেয় বিওএ। মহিলা ফুটবল দলের শিলং যাওয়ার জন্য বিশেষ বিমানের ব্যবস্থা করা হয়।

নতুন সূচী অনুযায়ী বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের কোন খেলা সকালে, কোন খেলা দুপুরে, আবার কোনটা সন্ধ্যায়। একেক সময় একেক খেলার সময় নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন ফুটবলপ্রেমীরা। স্বাগতিক ভারত নিজেদের সুবিধার্থে এবং উদীয়মান বাংলাদেশ দলকে বিপাকে ফেলতেই খেলার তারিখ এবং ম্যাচের এমন উদ্ভট সময় নির্ধারণ করা হয়েছে বলে মনে করছেন সচেতন ফুটবলপ্রেমীরা।

যদিও বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন যাওয়ার আগে বলে যান ঠা-া আবহাওয়া বা নতুন সময়সূচী নিয়ে তারা চিন্তিত নন। নিজেদের সেরাটা খেলতে পারলে এসএ গেমসে ভাল করবে তার দল।

২০১০ সালে প্রথমবার অংশ নিয়েই এসএ গেমসে তাম্রপদক জিতেছিল বাংলাদেশ। ভাগ্যদেবী সহায় হলে হয় তো সেবারই রৌপপদকের স্বাদ নিতে পারত সাবিনারা। যা নিয়ে অতৃপ্তি থাকলেও বাংলাদেশের এবারের লক্ষ্যটা সে আক্ষেপ ঘোচানোর।

বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন বলেন, ‘নেপালের সঙ্গে আমরা গতবার যে খেলা খেলেছি এবার তার চেয়ে ভাল কিছু করব। আমাদের লক্ষ্য থাকবে নেপালকে হারানো। আমাদের এবারের দলটাও শক্তিশালী।’

এসএ গেমসের জন্য এই দলটি নিজেদের তৈরি করছে গত নবেম্বর থেকে। এর মাঝেই দলের বেশ কিছু ফুটবলার অংশ নিয়েছিল নেপালে অনুষ্ঠিতব্য এএফসির আঞ্চলিক চ্যাম্পিয়নশিপে। এছাড়াও দলটির অনেক সদস্যরই আছে এএফসি অনুর্ধ ১৬ বাছাই খেলার অভিজ্ঞতা। তাই তরুণ আর অভিজ্ঞদের মিশেলে গড়া এই দল নিয়ে বেশ আশার কথা কোচ ছোটনের কণ্ঠে, ‘আগের আসরে আমাদের দল ছিল অনভিজ্ঞ। এবার আমরা যাচ্ছি কিছু অভিজ্ঞ ফুটবলার নিয়ে। তাই আমার মনে হয় আগে যেভাবে প্রতিপক্ষকে ভয় পেয়ে বা বাড়তি সম্মান দিয়ে খেলতে নামতাম সেই অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে। এই দলকে নিয়ে ফাইনালে খেলার আশা করতেই পারি।’

বাংলাদেশের মতো ভারতের শিলংয়েও বেজায় ঠা-া। সেখানে ঠা-াটা বেশি। আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নিতে একটু আগেভাগে ভারত যেতে পারলে ভাল হতো বলে মনে করেন ছোটন।

গতবার এসএ গেমসে ছোটন ছিলেন দলের সহকারী কোচের দায়িত্বে। এবার চ্যালেঞ্জটা নিজের কাঁধে। সেটা ভালভাবেই উতরানোর লক্ষ্য ছোটনের, ‘আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে গতবারের চেয়ে থেকে ভাল করা। গতবার আমরা ব্রোঞ্জ পেয়েছিলাম। আমরা এবার আরও ভাল করতে চাই।’

আজকের ম্যাচে নেপাল বধে প্রতিশোধ নিতে পারবে কি না ছোটনের শিষ্যরা, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

প্রকাশিত : ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, ১২:২৩ এ. এম.

০৫/০২/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলা



শীর্ষ সংবাদ: