২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

সূচকের পতনে পুঁজিবাজারে শেষ হলো সপ্তাহ


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার দুই বাজারেই লেনদেন হয়েছে পতনে। এদিন দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে মূল্য সূচকের পতন হয়েছে। একই সঙ্গে দুই বাজারেই কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। যদিও প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে দিনটিতে বেশিরভাগ কোম্পানিরই দর বেড়েছে। কিন্তু অপেক্ষাকৃত বড় মূলধনী কোম্পানিগুলো দিনটিতে হর হারিয়েছে যার কারণে সূচকের কিছুটা পতন ঘটেছে। তবে খুব বেশি পতন হলেও লেনদেন কমে দাঁড়িয়েছে সাড়ে তিন শ’ কোটি টাকার নিচে। দিনটিতে ফু-ওয়াং সিরামিক, জেমিনি সি ফুড, লিব্রা ইনফিউশন ও রহিম টেক্সটাইলের মতো স্বল্প মূলধনী কোম্পানির বিক্রেতাশূন্য অবস্থায় লেনদেন হয়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরু হলেও দিনশেষে আর তা অব্যাহত থাকেনি। শেষ দিনে ডিএসইতে ৩৪২ কোটি ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের তুলনায় ৭২ কোটি টাকা কম। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৪১৪ কোটি ৬২ লাখ টাকার শেয়ার। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩২৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৯টির, কমেছে ১২২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টি শেয়ার দর।

সকালে ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ২ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৫৭১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক দশমিক ৪৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ১০৮ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৪২ পয়েন্টে। আইডিএলসির বাজার বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, সারাদিনের উত্থান-পতন শেষে ডিএসইর সূচকটি আগের দিনের তুলনায় কমেছে। তবে দিনটিতে বড় মূলধনী কোম্পানির লেনদেন বেড়েছে। কিন্তু সাধারণ বিনিয়োগকারীদের দ্রুত মুনাফা তোলার চাপের কারণেই সূচক কিছুটা পড়েছে।

দিনটিতে ওষুধ ও রসায়ন, জ্বালানি এবং শক্তি খাতটি মোট ১৪ দশমিক ৮০ শতাংশ এবং ১২ দশমিক ৯০ শতাংশ লেনদেন করে প্রথম এবং দ্বিতীয় স্থান দখল করেছে। অন্যদিকে আরএকে সিরামিকের ৩ শতাংশ দর পতনের দিনে সার্বিক খাতটির মোট ২ শতাংশ দরপতন ঘটেছে। এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের আগের চেয়ে ৭ দশকি ৩০ শতাংশ রেমিটেন্স কমা এবং আন্তর্জাতিক বাজারের তেলের দরও কিছুটা প্রভাবিত করেছে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- লিন্ডে বাংলাদেশ লিমিটেড, বেক্সিমকো ফার্মা, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেড, আরএকে সিরামিকস বাংলাদেশ লিমিটেড, স্কয়ার ফার্মা, সিটি ব্যাংক, বিএসসিসিএল, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, এ্যাপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেড এবং বাংলাদেশ এক্সপোর্ট ইমপোর্ট কোম্পানি লিমিটেড।

বৃহস্পতিবারে ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জেও সব ধরনের সূচকই কমেছে। সারাদিনে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ২৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ১২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৭৯ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩২টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯০টির, কমেছে ১০১টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির।