১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বই নিয়ে বিপাকে মাধ্যমিক শিক্ষার্থী


নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ৩ ফেব্রুয়ারি ॥ বালিয়াতলী মুসলিম শিশুপল্লী একাডেমির সপ্তম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ইয়ামিন হাওলাদার। বিনামূল্যে সরকারের দেয়া বাংলাদেশ ও বিশ^পরিচয় বইটি নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। বইটির শুরু ৯ পৃষ্ঠা থেকে। তাও আবার খ-িতভাবে ২২ পৃষ্ঠা পর্যন্ত একই অধ্যায় একাধিকবার ছাপা রয়েছে। একইভাবে তৃতীয় অধ্যায় বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য প্রিন্ট রয়েছে তিনবার, ২৩ পৃষ্ঠা থেকে ৫৪ পৃষ্ঠা পর্যন্ত। ৪, ৫ ও ৬ অধ্যায় নেই। বাড়তি বইও নেই যে তা নিয়ে এ শিক্ষার্থী পড়বে। একই সমস্যায় ওই বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর সাবিনা ইয়াসমিনের। ইংরেজী বইয়ের কয়েকটি পৃষ্ঠায় কোন ছাপা নেই। সাদা।

নবম-দশম শ্রেণীর অর্থনীতি বইটিতেও রয়েছে এমন সমস্যা। একই সমস্যা ষষ্ঠ শ্রেণীর গণিত বইতে। এভাবে প্রিন্টিং সমস্যাসহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যায় শিক্ষার্থীরা পড়েছেন বিপাকে। ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মহিউদ্দিন ভুঁইয়া জানান, বাড়তি বই নেই।

ফলে ছাত্র-ছাত্রীরা পড়েছে বিপাকে। মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির কলাপাড়া উপজেলা শাখার সভাপতি খেপুপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহাদৎ হোসেন বিশ^াস জানান, এ ধরনের অসংখ্য সমস্যা প্রতিদিন ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে শুনতে হচ্ছে।

কিন্তু সমাধান করা যাচ্ছে না। ফলে শিক্ষার্থীদের সমস্যা সমাধান করা যাচ্ছে না। খেপুপাড়া বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন জানালেন, ছাত্রীদের কাছ থেকে এ ধরনের সমস্যার কথা আমাদের কাছে আসছে।

বই বদল কিংবা পুরনো বই মিলিয়ে সমস্যার সমাধান করা হচ্ছে। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাসুদ হাসান পাটোয়ারী জানান, বিষয়টি পরিষ্কারভাবে জেনে সমাধানের জন্য মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে বলা হচ্ছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী রুহুল আমিন জানান, বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হচ্ছে। কিন্তু শিক্ষার্থীর এ সমস্যা কিভাবে সমাধান হবে তা বুঝে উঠতে পারছে না ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা। কারণ বাড়তি কোন বই নেই যে শিক্ষকরা তা পাল্টে সমাধান করবেন।