২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ঢাকা আর্ট সামিট শুরু হচ্ছে ৫ ফেব্রুয়ারি


স্টাফ রিপোর্টার ॥ দক্ষিণ এশিয় আর্টের সবচেয়ে বড় আয়োজন ‘ঢাকা আর্ট সামিট ২০১৬’ শুরু হচ্ছে ৫ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালায় আয়োজিত এ সামিটে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় ৬০০ আর্টিস্ট, কিউরেটর, লেখক, আর্ট প্রফেশনাল এবং কালেক্টর অংশগ্রহণ করবেন। এর মধ্যে ৭০ জনের বেশি বাংলাদেশি রয়েছেন। শিল্পকলা একাডেমির সহায়তায় তৃতীয়বারের মতো এ প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে সামদানি আর্ট ফাউন্ডেশন। একাডেমির চিত্রশালা মিলনায়তনে সকাল ১০টায় চার দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি থাকবেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ও সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। এ উপলক্ষে শিল্পকলা একাডেমির চিত্রশালা মিলনায়তনেিআজ বুধবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলন হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন সামদানি আর্ট ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট ও কো-ফাউন্ডার নাদিয়া সামদানি এবং কো-ফাউন্ডার রাজিব সামদানি, গোল্ডেন হারভেস্টের চিফ অপারেটিং অফিসার জাকির ইবনে হাই ও চিত্রশিল্পী মনিরুজ্জামান। সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, ঢাকা আর্ট সামিটে বিশ্বের নামকরা ৮০টিরও বেশি প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা থাকছে। যেসব প্রতিষ্ঠান সহযোগিতা করছে তাদের মধ্যে অন্যতম হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি, ফ্রান্সের সেন্টার পম্পিদৌ, রকফেলার ফাউন্ডেশন, নরওয়েজিয়ান মিনিস্ট্রি অব ফরেন এ্যাফেয়ার্স ও সুইস আর্টস কাউন্সিল। এছাড়াও বিভিন্ন খ্যাতনামা আন্তর্জাতিক জাদুঘর টেইট মডার্ন, নিউইয়র্কের মেট্টোপলিটন মিউজিয়াম অব আর্ট, সলোমন আর গুগ্যেনহাইম, রুবিন মিউজিয়াম এবং কুন্সস্থালে জুরিখ তাদের কিউরেটরদের এবারের ঢাকা আর্ট সামিটে একটি আর্ট প্রোগ্রাম ডিজাইনে সহযোগিতার জন্য পাঠিয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, এবার আর্ট সামিটে একটি দীর্ঘ পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের ১৩ জন শিল্পীর নিজস্ব আঁকা ছবি প্রদর্শিত হবে। তাদের মধ্য থেকে একজনকে সামদানী আর্ট এ্যাওয়ার্ড তুলে দেওয়া হবে। প্রদর্শনীতে যেসব শিল্পীর ছবি প্রদর্শিত হবে তারা হলেন- আসিত মিত্র, আতিশ সাহা, ফারজানা আহমেদ উর্মি, গাজী নাফিস আহমেদ, পলাশ ভট্টাচার্য, রফিকুল শুভ, রাসেল চৌধুরী, রুপম রায়, সালমা আবেদীন প্রীতি, শামসুল আলম হেলাল, শিমুল সাহা, সুমন আহমেদ ও জিহান করিম।

জানানো হয়, ঢাকা আর্ট সামিট নিয়ে সংবাদ প্রতিবেদন করতে আসা ৫০ জনেরও বেশি আন্তর্জাতিক সাংবাদিক এসময় উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া সারা বিশ্বের দর্শকের জন্য ব্লুবার্গ টিভি এই আয়োজন নিয়ে ৩০ মিনিটের একটি ডকুমেন্টারি তৈরি করছে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত বক্তারা বলেন, সারা বিশ্ব দক্ষিণ এশিয়ান আর্ট নিয়ে আগ্রহী। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে মিউজিয়াম গুলোও দক্ষিণ এশিয়ান আর্টের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করেছে কিন্তু দক্ষিণ এশিয়া শিল্পের অবকাঠামোগত দুর্বলতার কারণে অনেক প্রতিভা অনাবিস্কৃত রয়ে যায়। দক্ষিণ এশিয় আর্টের কোন সুনির্দিষ্ট প্লাটফর্ম নেই, যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গার মানুষ এসে একসাথে উপভোগ করতে পারে। আমরা ঢাকা আর্ট সামিট এ জন্যই শুরু করেছি, যাতে দক্ষিণ এশিয় আর্টকে বিশ্বের মঞ্চে পরিচিত করিয়ে একে একটি যথাযোগ্য স্থানে প্রতিষ্ঠিত করতে পারি। বাংলাদেশি স্থপতিদের বিশ্বের দরবারে পরিচিত করতে তাদের নিয়ে একটি প্রদর্শনীও থাকছে সামিটের আলাদা একটি কর্নারে। যেখানে বাংলাদেশের ১৭ জন স্থপতির করা বিভিন্ন ডিজাইন স্থান পাবে। সবার জন্য উন্মুক্ত এ প্রদর্শনী চলবে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এবং প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: