২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

তৃতীয় বর্ষপূর্তিতে শাহবাগে গণজাগরণের মিলনমেলা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে গড়ে ওঠা গণজাগরণ মঞ্চের তৃতীয় বর্ষপূর্তিতে দুই দিনের কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়েছে। এসব কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে, মিলনমেলা, স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান, আলোচনাসভা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা প্রভৃতি। আগামী ৫ ও ৬ ফেব্রুয়ারীর কর্মর্সূচীতে যোগ দিতে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার।

এ উপলক্ষে সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ইমরান বলেন, ২০১৩ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে প্রতিবাদের দীপ্র মশাল হাতে নিয়ে তৃতীয় বর্ষপূর্তির মাহেন্দ্রক্ষণে এসে দাঁড়িয়েছে গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলন। শাহবাগের জনসমুদ্র থেকে এই আন্দোলন আজ ছড়িয়ে গেছে বিশ্বময়। গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলন সেই ইতিহাসেরই গর্বিত উত্তরাধিকার, যে ইতিহাস হাজার বছরের বাঙালির হার না মানার দৃঢ় সংগ্রামের চিরন্তন ইতিহাস। যে ইতিহাস মহাকাব্যিক মুক্তিযুদ্ধের বীরত্বের ইতিহাস।

৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬, গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনের আরেকটি গৌরবময় মাইলফলক স্থাপিত হতে যাচ্ছে। এই আন্দোলনে যে তাজা প্রাণগুলো ঝরে গেছে, তাদের প্রেরণায় উজ্জীবিত হয়ে আমরা আবারও মিলবো গণজাগরণের মিলনমেলায়। যারা এদেশের জন্য প্রাণ বিসর্জন দিয়ে গেছেন, তাদের রক্ত বৃথা যেতে না দেয়ার প্রত্যয়ে আমরা আরো একবার শপথের বজ্রমুষ্ঠি তুলে ধরবো, যে বজ্রমুষ্ঠি একাত্তরের পরাজিত হায়েনাদের অন্তরে আবারো কাঁপন ধরাবে।

গণজাগরণ দিবস উপলক্ষে কর্মসূচী ॥ পাঁচ ফেব্রুয়ারী দুপুর আড়াইটা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলবে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা 'রঙ তুলিতে স্বপ্নের বাংলাদেশ'; বিকাল ৪টা : গণজাগরণ দিবসের র‌্যালি 'জাগরণ যাত্রা', বিকাল ৫টা : স্মৃতিচারণমুলক অনুষ্ঠান 'স্মৃতিতে জাগরণ', সন্ধ্যা ৭টা : সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

৬ ফেব্রুয়ারি: বিকাল ৩টা : “মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বৈষম্যহীন ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ; কোন পথে আমরা?” শীর্ষক আলোচনা সভা, সন্ধ্যা ৬টা : চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ও শাহবাগের গান। যুদ্ধাপরাধীমুক্ত, জামাত-শিবিরমুক্ত মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্খার বৈষম্যহীন দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে সবাইকে

সপরিবারে, সবান্ধবে গণজাগরণের মিলনমেলায় অংশগ্রহণ করার আহ্বান জানাচ্ছে গণজাগরণ মঞ্চ।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: