১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

উন্নয়ন দেখে সন্ত্রাসের পথ ছেড়ে আলোচনার কথা বলছেন খালেদা জিয়া


সংসদ রিপোর্টার ॥ রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে সংসদ সদস্যরা বলেছেন, শত ষড়যন্ত্র-চক্রান্তের পরও দেশ আজ সবদিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বব্যাংকও দেশের এত উন্নয়নের প্রশংসা করেছে। ব্রিটিশ এক প্রতিবেদনেও বলা হয়েছে, ২০৫০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের মধ্যে ২৩তম অর্থনৈতিক দেশ হবে। এসব দেখে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া অগ্নিসন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের পথ ছেড়ে দিয়ে আলোচনা ও নির্বাচনের কথা বলছেন। কিন্তু নির্বাচন চাইলে তাঁকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে ডেপুটি স্পীকার এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া সভাপতিত্ব করেন। আলোচনায় অংশ নিয়ে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে গণতন্ত্রের স্পিরিট হিসেবে। বাংলাদেশ আজ গণতন্ত্রের পথে আছে বলেই ৫ জানুয়ারি নির্বাচন হয়েছে।

নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোটের জ্বালাও-পোড়াও ও নাশকতার রাজনীতি দেশের জনগণ মেনে নেয়নি, তার বহির্প্রকাশ ঘটেছে সদ্যসমাপ্ত পৌরসভা নির্বাচনে। উম্মে কুলসুম স্মৃতি বলেন, শত ষড়যন্ত্র সত্ত্বেও দেশ আজ সবদিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে। এটা দেখে আগুণ সন্ত্রাসের নেত্রী খালেদা জিয়া জঙ্গী-সন্ত্রাসের পথ ছেড়ে দিয়ে আলোচনার কথা বলছেন, নির্বাচনের কথা বলছেন। কিন্তু নির্বাচন চাইলে তাঁকে ২০১৯ সাল পর্যন্তই অপেক্ষা করতে হবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: