২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ইপিএলে জমজমাট লড়াই


আবারও জমে উঠেছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলের লড়াই। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় লীগগুলোর মধ্যে সবসময়ই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয়ে থাকে ইপিএল। সম্প্রতি বছরগুলোর মধ্যে ব্যতিক্রম ছিল কেবল ২০১৪-১৫ মৌসুম। সেবার অনেকটা একতরফাভাবে চ্যাম্পিয়ন হয় চেলসি। কিন্তু এক মৌসুম পর ফের স্বরূপে ফিরেছে ইপিএল। বর্তমানে লড়াই উপভোগ্য হয়ে উঠেছে। ক্রমাগত যেভাবে দলগুলোর মধ্যে উত্থান-পতন চলছে তাতে শেষ পর্যন্ত কার ভাগ্যের শিকে// ছিঁড়ে সেটা বলা মুশকিল। আজ আর্সেনাল তো দু’দিন পর লিচেস্টার সিটি শীর্ষে। কখনও কখনও ম্যানচেস্টার সিটিও উঠে আসছে উপরে। এই তিনটি দল ছাড়াও শিরোপা রেসে ভালভাবেই আছে টটেনহ্যাম হটস্পার, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেড। এদের পাশাপাশি বর্তমানে এগারো নম্বর পর্যন্ত থাকা দলগুলোরও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ আছে।

২০১৩-১৪ মৌসুমের মতো আবারও বেদনাসিক্ত হওয়ার শঙ্কা জেগেছে আর্সেনালের। সেবার শিরোপা দৌড়ে থাকা গানার্সরা শেষদিকে খারাপ করায় চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। এবারও দলটি সেই পথেই এগোচ্ছে! বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চেলসি এবারের মৌসুমে কাটাচ্ছে ভয়াবহ খারাপ সময়। প্রিমিয়ার লীগের ২২ ম্যাচে জয় পেয়েছিল মাত্র ছয়টিতে। অন্যদিকে ২২ ম্যাচের ১৩টিতে জয় দিয়ে শিরোপা লড়াইয়ের দৌড়ে প্রথম সারিতে ছিল আর্সেনাল। কিন্তু নিজেদের ২৩ নম্বর ম্যাচে মুখোমুখি লড়াইয়ে দারুণ ফর্মে থাকা আর্সেনালকেই হারিয়ে দিয়েছে ধুঁকতে থাকা চেলসি। এতে করে শিরোপা লড়াই আরও উপভোগ্য ও জমজমাট হয়েছে। নতুন বছরের শুরুতে আর্সেনালই ছিল পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে। কিন্তু টানা দুটি ড্র ও চেলসির কাছে হারের ফলে পয়েন্ট তালিকার তৃতীয় স্থানে নেমে যেতে হয়েছে তাদের। ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত ২৩ ম্যাচ শেষে আর্সেনালের সংগ্রহ ৪৪ পয়েন্ট। ৪৪ ও ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় ও প্রথম স্থানে আছে যথাক্রমে ম্যানচেস্টার সিটি ও লিচেস্টার সিটি। আর্সেনালের পর চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছে টটেনহ্যাম ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ২৩ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে ১৩তম অবস্থানে চেলসি। এবারও নির্লজ্জ ব্যর্থতা অব্যাহত রেখেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নিজেদের সর্বশেষ ম্যাচেও হারের তেতো স্বাদ পেয়েছে আসরের সর্বোচ্চ সাফল্যের দলটি। ঘরের মাঠ ওল্ডট্রাফোর্ডে ম্যানইউ ১-০ গোলে হার মানে অতিথি সাউদাম্পটনের কাছে। উত্থান-পতনের মধ্যেই আছে ম্যানচেস্টার সিটি। নিজেদের শেষ ম্যাচে ম্যানসিটি ২-২ গোলে ড্র করে ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডের সঙ্গে। চমক অব্যাহত রেখেছে লিচেস্টার সিটি। স্টোক সিটিকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ফের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ফিরেছে দলটি। বর্তমানে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে লিচেস্টার। এক সময় অনেক বড় বড় বক্তব্য শুনিয়েছেন ম্যানইউ কোচ লুইস ভ্যান গাল। কিন্তু কিছুতেই কাজের কাজ করতে পারছেন না এই ডাচ্ম্যান। সবশেষ ম্যাচে হারের পর তাই তার কণ্ঠে হাল ছেড়ে দেয়ার আভাস! ‘একঘেয়ে’, ‘বিরক্তিকর’ ফুটবল খেলার জন্য ইউনাইটেডকে চলতি মৌসুমে কম সমালোচনা সহ্য করতে হয়নি। তখন ভ্যান গাল সমালোচনাকে পাত্তাই দিতে চাননি। আর এখন তিনিই বলছেন, ‘আমি জানি, দর্শকদের জন্য এমন একটা ম্যাচ দেখাটা খুব পীড়াদায়ক। আমার নিজেরই তো সে রকম মনে হয়েছে। আর সমর্থকদের আমি ভুলও বলতে পারছি না। দুয়ো দেয়ার সব অধিকারই তাদের আছে।’ নিজেদের শেষ ১৩ ম্যাচের মাত্র তিনটিতে জিততে পেরেছে ইউনাইটেড। পয়েন্ট তালিকার পাঁচে অবস্থান, শিরোপা সম্ভাবনাটা অনেক দূরে সরে গেছে। তবে ফলের চেয়েও দলের খেলার ধরন নিয়েই বেশি সমালোচনা হচ্ছে। নিজেদের মাঠে সাউদাম্পটনের গোলে মাত্র একটি শট নিতে পেরেছে ইউনাইটেড। এই মৌসুমে লীগে প্রতিপক্ষের গোলে সবচেয়ে কম শট নিয়েছে ইউনাইটেডই। ২৩ ম্যাচে মাত্র ৩৫টি! ভ্যান গালের ঢাল অবশ্য মজুদ। তিনি বলেন এ প্রসঙ্গে ‘আমি তো সবার মনোভাব বদলাতে পারব না। আমি খেলোয়াড়দের নিয়ে পরিশ্রম করছি। খেলায় উন্নতি করার চেষ্টা করছি। আমি অবশ্যই হতাশ, কিন্তু এখন পরিস্থিতি পরিবর্তনের চেষ্টা করতে হবে। এটাই আমার কাজ, যদিও সহজ নয়।’ এ অবস্থায় ইউনাইটেডে ভ্যান গালের ভবিষ্যত অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ডাচ্ কোচ এই প্রসঙ্গটা এড়িয়ে গেছেন ‘আমি এই প্রশ্নের জবাব দিতে পারব না। এটা আমার দেয়ার কথা নয়। তবে এটা ঠিক, এই মাসে আমরা এরই মধ্যে তিনটি জয় পেয়েছি। কিন্তু সেই আত্মবিশ্বাস আমরা এই ম্যাচে দেখাতে পারিনি।’ ম্যানইউর নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানসিটিও স্বস্তিতে নেই। শেষ ম্যাচে ৮০ মিনিট পর্যন্ত ২-১ গোলে পিছিয়ে থাকার পর ৮১ মিনিটে সমতাসূচক গোল করে মান বাঁচান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড এ্যাগুয়েরো।