১৩ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হাসিনা-মোদি চুক্তি বাস্তবায়নের অগ্রগতিতে ঢাকা-দিল্লীর সন্তোষ


কূটনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি বাস্তবায়নের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেছে ঢাকা-দিল্লী। দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠকে এই সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। মঙ্গলবার ঢাকার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ভারতের পররাষ্ট্র সচিবের আমন্ত্রণে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব দু’দিনের দ্বিপক্ষীয় সফরে নয়াদিল্লীতে অবস্থান করছেন। নয়াদিল্লীর হায়দ্রাবাদ হাউসে সোমবার সন্ধ্যায় পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হকের সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব জয় শঙ্করের মধ্যে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে গত জুন মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরের সময় চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। এ সময় চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করে উভয় দেশ। বাংলাদেশ ও ভারতের পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠকে শান্তি ও নিরাপত্তা, পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা, বিদ্যুত ও জ্বালানি খাতে সহযোগিতা, ব্যবসা-বাণিজ্য-বিনিয়োগ, উন্নয়ন ও উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতা, যোগাযোগ, আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক সহযোগিতা এবং দু’দেশের মানুষের মধ্যে যোগাযোগসহ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের সকল বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক বৈঠকে চলতি বছরের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের সভাপতিত্বে ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য অভিবাসন ও উন্নয়ন শীর্ষক ৯ম গ্লোবাল ফোরামের বৈঠক সম্পর্কে ভারতের পররাষ্ট্র সচিবকে অবহিত করেন।

পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হকের সঙ্গে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্ট অজিত দোভাল ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিশেষ সচিব ড. অমরজিত সিংহয়ের সঙ্গেও বৈঠকের কথা রয়েছে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

সূত্র জানায়, দিল্লীতে পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক। আর ভারতীয় প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন সেদেশের পররাষ্ট্র সচিব ড. এস জয়শঙ্কর। পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের এই বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়। উল্লেখ্য, গত বছর ৬-৭ জুন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঢাকা সফর করেন। সেই সময়ে দুই দেশের নতুন প্রজন্মকে সামনে রেখে সম্পর্ক উন্নয়নের ‘নয়া প্রজন্ম নয়া দিশা’ শিরোনামে যৌথ ইশতেহার ঘোষণা করা হয়। এসব অগ্রগতির সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে আলোচনা করেন দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিব। আজ বুধবার পররাষ্ট্র সচিবের ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে।