১৯ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রাজধানীর যানজটে প্রাণ গেল অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূর


স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর দারুসসালাম থানা এলাকায় রাস্তার ফুটপাথে এক ব্যবসায়ীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার হয়েছে। যানজটে আটকা থেকে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। পুরান ঢাকার গে-াড়িয়ায় সিঁড়ি থেকে পড়ে এক ফেরিওয়ালার মৃত্যু হয়েছে। এদিকে ডেমরায় এক গৃহবধূকে এ্যাসিডে ঝলসে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনার পর পুলিশ তার স্বামীকে খুঁজছে। এছাড়া বাড্ডায় ছয় বছরের শিশুকে ‘যৌন নিপীড়নের’ অভিযোগ পেয়ে একটি মোটর গ্যারেজের তত্ত্বাবধায়ককে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজধানীর দারুস সালামে রফিকুল ইসলাম জোনায়েদ (৪০) নামে এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর ৬টার দিকে পুলিশ পাইকপাড়া মসজিদের সামনের ফুটপাথ থেকে মঙ্গলবার সকাল ৬টায় গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দারুস সালাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সেলিমুজ্জামান জানান, রফিকুলের লাশ ওই স্থানে ফুটপাথে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে। পরে তার লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ মর্গে পাঠায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। লাশের বুকের বাম পাশে ক্ষত এবং ফুটোর চিহ্ন রয়েছে। দারুস সালাম থানার এসআই মোঃ নাসির উদ্দিন জানান, যেখানে তাকে ফেলে রাখা হয়েছে তার ধারে কাছে তেমন ঘরবাড়ি নেই। মসজিদের পেছনে একটি স্কুল রয়েছে। তার পাশে রয়েছে সরকারী কর্মকর্তাদের দুটি স্টাফ কোয়ার্টার। সেই স্থানের ফুটপাথ ওই ব্যবসায়ীর গুলিবিদ্ধ লাশ পড়েছিল। এসআই নাসির উদ্দিন আরও জানান, রফিকুল ইসলাম ওই এলাকার বিল্লাল হোসেনের ছেলে। তিনি আবাসিক হোটেলের ব্যবসা করতেন। ব্যবসায়িক দ্বন্দ্বের কারণে তাকে হত্যা করা হতে পারে। তদন্ত চলছে। হত্যাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

যানজটে আটকে পড়ে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর মৃত্যু ॥ রাজধানীর যানজটে আটকা পড়ে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। নিহতের নাম শারমিন আক্তার (৩৫)। সোমবার রাতে মিরপুর ভাষানটেক থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপতালে আসার পথে তিনি মারা যান।

নিহতের আত্মীয়স্বজন জানান, সোমবার রাতের দিকে প্রসব বেদনা উঠলে শারমিনকে একটি সিএনজিতে করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ভাসানটেকের বাসা থেকে রাত ৭টার থেকে রওনা দিয়ে হাসপাতালে পৌঁছেন রাত ১০টার দিকে। টানা তিন ঘণ্টা যানজটে আটকে পড়ে ঢামেক হাসপাতালের জরুরী বিভাগের পৌঁছার পর কর্তব্য চিকিৎসকরা শারমিনকে মৃত ঘোষণা করেন। তারা অভিযোগ করেন, সোমবার রাতে ভাসানটেক থেকে হাসপাতালে পৌঁছতে বিভিন্ন স্থানে সিগন্যাল ও গাড়ির জটসহ ভয়াবহ যানজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে থাকতে হয়। এতে সিএনজিতে শারমিন প্রসব যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন। এক পর্যায়ে সিএনজিতে শারমিন জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তিন ঘণ্টা পর রাত ১০টার দিকে ঢামেক হাসপাতালের নেয়া হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আর এই যানজটের দীর্ঘ তিন ঘণ্টা আটকে পড়ার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।

সিঁিড় থেকে পড়ে একজনের মৃত্যু ॥ পুরনো ঢাকার গে-াড়িয়ায় সিঁড়ি থেকে পড়ে উকিল শেখ (৪৫) নামে এক ফেরিওয়ালার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের বাবার নাম হবু শেখ। গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জ থানার মোখলেসপুরের বড়দিয়া গ্রামে। নিহতের চাচাত ভাই উজির জানান, মঙ্গলবার সকালে মাথায় করে হলুদের বস্তা নিয়ে সিঁড়ি দিয়ে নামার সময় পা পিছলে পড়ে যায় উকিল। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়। ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সেন্টু চন্দ্র দাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তার লাশের ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ্যাসিড দগ্ধ গৃহবধূ ॥ রাজধানীর ডেমরায় জেসমিন আক্তার (২৬) নামে এক গৃহবধূকে এ্যাসিডে ঝলসে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী আমির হোসেনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার তার স্বামী গা ঢাকা দিয়েছে। পুলিশ তাকে খুঁজছে। ডেমরা থানার ওসি এসএম কাওসার আহমেদ জানান, জেসমিনের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার দাউদকান্দি এলাকায়। তিনি ডেমরা মাতুয়াইল কোনপাড়ার শাহজালাল রোডের মোসলেম মিয়ার বাড়িতে স্বামী আমির হোসেনকে নিয়ে থাকতেন। মঙ্গলবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে কোনাপাড়ায় জেসমিন নামে ওই গৃহবধূর মাথায় তার স্বামী আমির হোসেন এ্যাসিড ঢেলে দেয়। এতে জেসমিনের মাথায়, মুখম-ল, বুক ও দুই হাত ঝলসে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। বার্ন ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসক আবু সাঈদ জানান, তার মাথা, মুখম-ল, বুক ও দুই হাতসহ শরীরের ১০ ভাগ ঝলসে গেছে। চিকিৎসাধীন জেসমিন জানান, ওই এলাকায় বাসাবাড়িতে কাজ করেন তিনি। সকালে ঝগড়ার এক পর্যায়ে তার মাথায় এ্যাসিড ঢেলে দেন স্বামী আমির। পরে স্বামী আমির দ্রুত বাসা থেকে পালিয়ে যায়। প্রতিবেশীরা জানান, কিছুদিন ধরে আমির হোসেন তার স্ত্রী জেসমিনকে পরকীয়া নিয়ে সন্দেহ করছিল। আর এসব বিষয়ে পারিবারিক কলহে জড়িয়েও পড়েছেন তারা। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে আমির তার স্ত্রী জেসমিনকে ছেড়ে চিরতরে চলে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তুমুল বাগবিত-া হয়। একপর্যায়ে আমির ঘরে থাকা এ্যাসিড জেসমিনের মুখে ছুড়ে মারেন। তাদের সংসারে এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

ছয় বছরের শিশুকে যৌন নিপীড়ন ॥ রাজধানীর বাড্ডায় ছয় বছরের শিশুকে ‘যৌন নিপীড়নের’ অভিযোগ পেয়ে একটি মোটর গ্যারেজের তত্ত্বাবধায়ক ইউনুস আলী মাতব্বরকে (৫৫) আটক করেছে পুলিশ। বাড্ডার থানার ওসি আব্দুল জলিল জানান, মঙ্গলবার সকালে বাড্ডার ডিআইটি প্রজেক্টের ৪ নম্বর সড়কের ওই গ্যারেজে শিশুটিকে ‘যৌন নিপীড়ন’ করা হয়। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটির বাবা পেশায় গাড়িচালক। ওই গ্যারেজের কাছেই একটি বাসায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকেন তিনি। ওসি জলিল জানান, সকালে শিশুটি খেলার সময় ইউনুস মাতব্বর তাকে ডেকে রিকশার গ্যারেজে নিয়ে যৌন নির্যাতন করেন। পরে শিশুটি গিয়ে তার বাবাকে জানায়। পরে তার বাবাসহ স্থানীয়রা ইউনুসকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা মামলা করবেন বলে বাড্ডা থানার ওসি এমএ জলিল জানিয়েছেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: