২০ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মীর কাশেম আলীর আপীলের শুনানি ৯ ফেব্রুয়ারি


স্টাফ রিপোর্টার ॥ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক মুত্যুদ-প্রাপ্ত বদর বাহিনীর তৃতীয় শীর্ষ নেতা তৎকালীন ইসলামী ছাত্র সংঘের সাধারণ সম্পাদক, চট্টগ্রামের বাঙালী খান, জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদের সদস্য মীর কাশেম আলীর রায়ের বিরুদ্ধে করা আপীল শুনানি ৯ ফেব্রুয়ারি ধার্য করা হয়েছে। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপীল বিভাগের চার সদস্যবিশিষ্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার শুনানির পরবর্তী ওই দিন ধার্য করে দেন। বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন- বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। এটি হলো আপীলে সপ্তম মামলা, যা চূড়ান্ত নিষ্পত্তির জন্য রয়েছে।

মঙ্গলবার এ আপীল মামলার শুনানির দিন ধার্য ছিল। মামলাটি শুনানির জন্য উত্থাপিত হলে প্রস্তুতির জন্য সময় চেয়ে শুনানি পেছানোর আবেদন জানান মীর কাশেমের পক্ষের প্রধান ও সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী এসএম শাহজাহান। এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় মীর কাশেম আলীর পক্ষে এ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন তুহিন গত বছর ৩০ নবেম্বর এ আপীল দায়ের করেন। মীর কাশেমের পক্ষে ১৮১টি গ্রাউন্ডে মৃত্যুদ- থেকে খালাস চেয়ে এ আপীল করা হয়েছে। দেড় শ’ পৃষ্ঠার মূল আপীলসহ ৫ ভলিয়মে এক হাজার ৭৫০ পৃষ্ঠায় বিভিন্ন ডকুমেন্ট পেশ করা হয়েছে। ২০১৪ সালের ২ নবেম্বর তাকে মৃত্যুদ- দিয়ে রায় ঘোষণা করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাব্যুনাল। ট্রাইব্যুনাল-২-এর চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিচারিক প্যানেল জনাকীর্ণ ট্রাইব্যুনালে এ রায় ঘোষণা করেন। ট্রাইব্যুনালের অপর দুই সদস্য হচ্ছেন বিচারপতি মোঃ মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম।