২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

“সোনালী শষ্য ফলে বাঁশখালীর সাগর উপকূলে”


“সোনালী শষ্য ফলে বাঁশখালীর সাগর উপকূলে”

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁশখালী ॥ “সোনালী শষ্য ফলে বাঁশখালীর সাগর উপকূলে” শীতকালীন সবজিতে ভরে গেছে উপকূল। কৃষকের মুখে হাসির আভা ফুটে উঠেছে। দক্ষিণ চট্টগ্রামে সবজি উৎপাদনে অন্যতম উপজেলা বাঁশখালী। এই উপজেলার পূর্ব দিকে পাহাড় জুড়ে এবং উপকূলের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাপক জায়গা জুড়ে চাষ বিভিন্ন প্রজাতির সবজির। উপকূলীয় এলাকা গুলোতে শুকনো মৌসুমে নানা ধরনের সবজি ও বোরো চাষ, লবণ উৎপাদন হয় অপর দিকে বর্ষা মৌসুমে চিংড়ি চাষ সহ নানা ধরনের চাষ হয়ে থাকে। একদিকে লবণ উৎপাদন, অপর দিকে শীতকালীন নানা ধরনের সবজি যেমন- টমেটো, আলু, মিষ্টি লাউ, কুমড়া ও শসার উৎপাদন এখন চোখে পড়ার মত। বৃহস্পতিবার উপকূলীয় খানখানাবাদ ও বাহারছড়া এলাকায় এই প্রতিবেদক সরজমিনে পরিদর্শনকালে বেড়িবাঁধের আশে পাশে জমি গুলোতে প্রচুর পরিমাণ সবজি ক্ষেত দেখা যায়। যথাযথ পরিবেশ ও বেড়িবাঁধ স্থায়ী হলে উপকূলবাসীর দুঃখ চিরদিনের জন্য লাঘব হবে। কারণ উপকূলীয় এলাকায় বার মাসই নানা ধরনের ফসল ফলানো সম্ভব হয়। স্থায়ী বেড়িবাঁধ না হওয়ায় বর্ষা মৌসুমে জোয়ারের পানি ঢুকে ফসলী জমির ক্ষতি সাধন করলেও শুকনো মৌসুমে চাষীরা নিজেদের যে জায়গা টুকু রয়েছে তাতে টমেটো, শসা, বেগুন, করলা, মূলা মিষ্টি কুমড়া, লাউ, সিম থেকে শুরু নানা ধরনের সবজির ক্ষেতে কর্ম ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে চাষীরা।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: