মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ফাইনালে মুখোমুখি আজ নৌবাহিনী-বিকেএসপি

প্রকাশিত : ২৪ ডিসেম্বর ২০১৫
  • বিজয় দিবস হকি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘ফু-ওয়াং পলিমার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড বিজয় দিবস হকি প্রতিযোগিতা’য় বুধবার দুটি সেমিফাইনালের খেলা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ নৌবাহিনী এবং বিকেএসপি। নৌবাহিনী ৪-০ গোলে বাংলাদেশ বিমানবাহিনী হারায়। নৌবাহিনীর হয়ে একটি করে গোল করেন মামুনুর রহমান চয়ন, রাসেল মাহমুদ জিমি, রোমান সরকার এবং কৃষ্ণ কুমার দাস। দ্বিতীয় খেলায় বিকেএসপি ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মধ্যকার নির্ধারিত সময়ের খেলায় ৩-৩ গোলে ড্র হওয়ায় পেনাল্টি শূট আউটে বিকেএসপি ৭-৬ গোলে জয় লাভ করে ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। নির্ধারিত সময়ের বিকেএসপির হয়ে ১টি করে গোল করেন রাজিব দাস, ফজলে হোসেন রাব্বি এবং মাহবুব হোসেন। সেনাবাহিনীর হয়ে জোড়া গোল করেন রোকনুজ্জামান। একটি গোল করেন মিলন হোসেন। আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় ফাইনালে মুখোমুখি হবে নৌবাহিনী বনাম বিকেএসপি। ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনী প্রধান ও বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সভাপতি এয়ার মার্শাল আবু এসরার বিবিপি, এনডিসি, এসিএসসি। বিশেষ অতিথি থাকবেন এটিএন বাংলা লিমিটেডের চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমান ও ফু-ওয়াং পলিমার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক ইসতিয়াক সাদেক।

২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চায় বাফুফে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের সমর্থকদের হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় বাংলাদেশ দ-বিধির ১৪৯/৪৪৩/৪২৭/৩৪ ধারায় অজ্ঞাতনামা ১৫০-২০০ জনকে আসামি করে মতিঝিল থানায় মামলা দায়ের করেছে বাফুফে। হামলাকারীদের কাছ থেকে ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণও দাবি করেছে বাফুফে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হামলার পরপরই মতিঝিল থানায় মামলাটি করা হয়। পুলিশকে বাফুফে অনুরোধ করেছে তারা যেন অতি শীঘ্রই প্রকৃত আসামিদের খুঁজে বের করার বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

ভবিষ্যতে বাফুফে ভবনে এ ধরনের ঘটনা আরও ঘটতে পারে। এ জন্য ইতোমধ্যে বাংলাদেশ পুলিশের কাছে আবেদন করা হয়েছে বাফুফের পক্ষ থেকে। বাফুফে ভবনের নিরাপত্তা জোরদার করতে হামলার পরপরই বাফুফে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে। আগামী কয়েকদিনের জন্য পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েনের বিষয়ে তাদের কাছে আবেদনও করেছে। আর ভবিষ্যতের স্থায়ী নিরাপত্তার জন্য বাফুফে ভবনে নিরাপত্তাকর্মী বাড়ানোসহ পুরো চত্বরে সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসার কথাও ভাবা হচ্ছে।

বাফুফে ভবনে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে চ্যাম্পিয়নশিপ লীগের খেলা। লীগের পরবর্তী ম্যাচ কবে নাগাদ মাঠে গড়াবে তা নিয়ে আজ বাফুফে ভবনে একটি সভা অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, গত ২২ ডিসেম্বর চ্যাম্পিয়নশিপ লীগে বাংলাদেশ পুলিশের কাছে ৩-২ গোলে ম্যাচ হেরে যাওয়াতে রেফারির ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের ওপর হামলা চালায় আরামবাগের সমর্থকরা। সহকারী রেফারি মনির হোসেন তাদের হামলায় আহত হন। তার মাথা ফেটে রক্ত ঝরতে থাকে। অবস্থা বেগতিক দেখে মাঠে উপস্থিত পুলিশরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য আরামবাগের উগ্র সমর্থকদের ওপর নির্বিচারে লাঠিচার্জ করে। এতে অনেকেই আহত হয়। এরপর পুলিশ প্রহরায় মাঠ ছাড়লে বিকেল ৫টার পর আরামবাগের শতাধিক উগ্র সমর্থক এসে হামলা চালায় বাফুফে ভবনে। এতে করে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয় বাফুফে ভবনের।

প্রকাশিত : ২৪ ডিসেম্বর ২০১৫

২৪/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: