মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

জানুয়ারিতে শুরু মাশরাফিদের অনুশীলন

প্রকাশিত : ২৪ ডিসেম্বর ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জানুয়ারিতে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ৫ ম্যাচের টি২০ সিরিজ হবে, না এক টেস্ট ও তিন টি২০ ম্যাচের সিরিজ হবে; তা এখনও নিশ্চিত হয়নি। তবে এশিয়া কাপ টি২০ ও টি২০ বিশ্বকাপের সূচী আগে থেকেই নির্ধারিত হয়ে আছে। আর তাই অপেক্ষা নয়। জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিকদের অনুশীলন শুরু হয়ে যাবে। ২৪ সদস্যের একটি প্রাথমিক দলও দেয়া হবে। যে দলটি অনুশীলন ক্যাম্পে অংশ নেবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচক কমিটির প্রধান ফারুক আহমেদও তাই জানালেন। বললেন, ‘জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে জাতীয় দলের অনুশীলন ক্যাম্প শুরু হবে। এ ক্যাম্পের জন্য একটি ২৪-২৫ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করা হবে। সেই দলকে নিয়েই ক্যাম্প চলবে।’ সেই ক্যাম্পে কাদের অবস্থান হবে? জানতে চাইলে ফারুক বলেন, ‘আমাদের হাতে একটা দল তো সব সময়ই থাকে, যে দলটা সম্প্রতি আন্তর্জাতিক টি২০ খেলেছে। আমরা এ বছর পাকিস্তানের বিপক্ষে টি২০ খেলেছি, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলেছি। সেসব খেলোয়াড় তো থাকবেই। এ ছাড়া বিপিএলে কিছু খেলোয়াড় ভাল খেলেছে। মোটামুটি ২৪-২৫ জনের একটা স্কোয়াড।’ বিপিএলের তৃতীয় আসর শেষ হয়েছে ১৫ ডিসেম্বর। দুই সপ্তাহের বেশি সময় বিশ্রাম পাচ্ছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। এ টুর্নামেন্টে একটি নাম সবচেয়ে বেশি শোনা গেছে। তিনি আবু হায়দার রনি। পেস বোলার। ২১ উইকেট নিয়েছেন। যদি জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে সিরিজ হয় তাহলে সেই সিরিজেই রনিকে দেখা যেতে পারে। আর যদি জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে সিরিজ না হয় তাহলে এশিয়া কাপেই রনিকে ঝালিয়ে নেয়া হবে। ফারুক আহমেদ জানান, ‘বোলাররা অনেক ভাল খেলেছে বিপিএলে। ব্যাটিংয়েও কয়েকজনের খেলা ভাল লেগেছে। মনে হয়েছে ওরাও টি২০ ভাল করতে পারে। সে রকম দু-একটা মুখও হয় তো দেখতে পাবেন প্রাথমিক দলে।’

জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে সিরিজ হলে জানুয়ারিতেই হবে। তখন জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে সিরিজ খেলবে জাতীয় দল। যে প্রাথমিক দলটি দেয়া হবে, সেখান থেকেই জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে সিরিজের জন্য চূড়ান্ত দল বের করা হবে। আর তা না হলে ক্যাম্প চলতে থাকবে। এশিয়া কাপ ও টি২০ বিশ্বকাপের জন্য দল এখান থেকেই হবে। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে মাঠে গড়াবে এশিয়া কাপ। পাঁচ দলের অংশগ্রহণে এই টুর্নামেন্ট শেষ হবে ৬ মার্চ। এর আগে ১৯ ফেব্রুয়ারি ঢাকাতেই পাঁচ সহযোগী দেশ নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে বাছাইপর্ব। বাছাইপর্বে এর আগের বছর এশিয়া কাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলা আফগানিস্তানের মোকাবেলা করবে হংকং, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমান। বাছাইপর্বের চ্যাম্পিয়ন দল চার টেস্ট খেলুড়ে দেশ- বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে খেলবে চূড়ান্ত পর্ব। পঞ্চমবারের মতো বাংলাদেশে আয়োজিত হবে এশিয়া কাপ। আর টানা তৃতীয়বারের মতো দেশের মাটিতে এশিয়া কাপ হবে। ৮ মার্চ ভারতে টি২০ বিশ্বকাপ শুরু হবে। আর তাই এবার টি২০ ফরমেটে হবে এশিয়া কাপ। এর আগে ২০১৪, ২০১২, ২০০৮ ও ১৯৮৮ সালে এশিয়া কাপের আয়োজক ছিল বাংলাদেশ। এশিয়া কাপ শেষ হতেই ৯ মার্চ থেকে টি২০ বিশ্বকাপে খেলতে নামতে হবে বাংলাদেশকে। হল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড ও ওমানের বিপক্ষে প্রথম রাউন্ডে খেলবে বাংলাদেশ। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে সুপার ১০ এ খেলবে বাংলাদেশ। নির্বাচক কমিটির সদস্য মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘আমরা ২৪ জনের দল তৈরি করছি। জিম্বাবুইয়ে সিরিজটা মাথায় আছে। এগুলো ছাড়াও এশিয়া কাপ ও টি২০ বিশ্বকাপ আছে। তবে সবই টি২০ ফরমেটের। তাই আমরা একমত হয়েছি জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই জাতীয় দলের প্রস্তুতি শুরু করা হবে।’

ওয়ালটন বাংলা চ্যানেল ম্যারাথন সাঁতার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ব্রজেন দাশের কথা মনে আছে? ভুবন বিখ্যাত সাঁতারু। যিনি ইংলিশ চ্যানেল সাঁতারের গৌরব অর্জন করেছিলেন। তা শুধু এক-দুইবার নয়। ছয়বার! ব্রজেন দাশের মতো আরও অনেকেই চেষ্টা করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশে ইংলিশ চ্যানেল নেই। কিন্তু বাংলা চ্যানেল আছে। সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফ পর্যন্ত এই চ্যানেলের আয়তন ১৬.১ কিলোমিটার। এখানেই গেল ১০ বছর ধরে আয়োজিত হচ্ছে ম্যারাথন সাঁতার। এবার ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় আগামী ২৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘ওয়ালটন প্রেজেন্টস বাংলা চ্যানেল ম্যারাথন সাঁতার’। এভারেস্ট একাডেমির আয়োজনে, বাংলা চ্যানেলের আবিষ্কারক কীর্তিমান ফটোগ্রাফার ও স্কুবা ডাইভার মরহুম কাজী হামিদুল হকের (১৯৪৯-২০১৩) স্মরণে আয়োজিত এই ম্যারাথন সাঁতারে এবার ছয় সাঁতারু বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেবেন। সোমবার এ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের ফার্স্ট সিনিয়র এডিশনাল ডিরেক্টর এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), এভারেস্টজয়ী মুসা ইব্রাহীম, এভারেস্ট একাডেমির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাফাহ উদ্দিন সিরাজীসহ অন্যরা। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় ২৫ ডিসেম্বর সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফ পর্যন্ত ১৬.১ কিলোমিটার সাঁতরাবেন সামসুজ্জামান আরাফাত, মনিরুজ্জামান, পারভেজ রশিদ, লিটন সরকার, ফজলুল কবির এবং শাহাদাত পাশা।

প্রকাশিত : ২৪ ডিসেম্বর ২০১৫

২৪/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: