১৭ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ঐতিহ্য রক্ষা পাক


পিন্টু চন্দ্র সরকার

একটা সময় ছিল যখন পরিবারের কেউ দূরে থাকলে তার সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম ছিল চিঠি। মাইল খানেক পথ পাড়ি দিয়ে চিঠি পোস্ট অফিসে জমা দিতে হতো। এখন সে যুগ নেই। বর্তমান যুগ ইন্টারনেট-নির্ভর। ইন্টারনেটের কল্যাণে এখন ই-মেইলের সাহায্যে সহজেই এক স্থানের খবরাখবর পৌঁছে যাচ্ছে অন্য স্থানে। সেসঙ্গে অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ ব্যবস্থা তো রয়েছেই। তাই বলে নিজেদের ঐতিহ্য তো আর ভোলা যাবে না! আমরা আধুনিক হওয়ার অজুহাতে অনেক পুরনো স্মৃতি, ঐতিহ্যগুলোকে পেছনে ফেলে দিচ্ছি। ঐতিহ্যকে পেছনে ফেলে কখনোই সামনে এগুনো যায় না। তাই পোস্ট অফিসকে বাঁচিয়ে রাখতেই হবে। তাছাড়া এ পোস্ট অফিসে কর্মরত আছেন অনেক নারী-পুরুষ। পোস্ট অফিস বন্ধ হয়ে গেলে তারাও পড়ে যাবে বেকায়দায়।

অনেক সংবাদপত্র এখনও পাঠকদের যোগাযোগের ক্ষেত্রে পোস্ট অফিসে পাঠানো চিঠিকেই গুরুত্ব দিয়ে থাকে। এটা খুব ভাল একটা দিক। কারণ, আমরা সবাই যদি ডিজিটালের জোয়ারে গা ভাসিয়ে দেই, তবে আমাদের ঐতিহ্য, সংস্কৃতিগুলো বিলীন হতে খুব বেশি সময় লাগবে না। একসময় মানুষ যেমন আপনজনের কাছে চিঠি পাঠালে উত্তরের আশায় আকুল হয়ে থাকত, হয়ত আমাদের অবহেলার কারণে তেমনি পোস্ট মাস্টার বা যারা পোস্ট অফিসের সঙ্গে জড়িত আছে তারাও দিন গুনবে- কবে এই পোস্ট অফিস বন্ধ হবে? হয়ত একদিন আমরা পোস্ট অফিস বা রানারের নাম ভুলে যাব, সবটাই অতীত হয়ে যাবে। শুধু বই পুস্তকে খুঁজলে পাওয়া যাবে। তা যেন না হয়- এটাই প্রত্যাশা।

কান্দিরপাড়, কুমিল্লা থেকে