১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

উচ্ছ্বসিত সাকিব, তামিম


মিথুন আশরাফ ॥ পাকিস্তান সুপার লীগে (পিএসএল টি২০) খেলা সোমবারই নিশ্চিত হয়ে গেছে বিশ্বসেরা টি২০ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। সঙ্গে বাংলাদেশ ওপেনার তামিম ইকবাল ও ‘কাটার’ খ্যাত পেসার মুস্তাফিজুর রহমানেরও। ‘খেলোয়াড় ড্রাফটে’র প্রথমদিনেই শোয়েব মালিকের করাচী কিংস দলে ভিড়িয়েছে সাকিবকে। শহীদ আফ্রিদির পেশোয়ার জালমি নিয়েছে তামিমকে। আর ক্রিস গেইলের লাহোর কালান্দার্স দলে যুক্ত করেছে মুস্তাফিজকে। মঙ্গলবার সাকিবের দলে মুশফিকুর রহীমকেও নেয়া হয়েছে। প্রথমবারের মতো সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৪ থেকে ২৩ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় পাকিস্তানের এ টি২০ ঘরোয়া টুর্নামেন্টে সুযোগ পেয়ে দারুণ উচ্ছ্বসিত সাকিব। তামিমতো শিহরিত! দল পেয়েই সাকিব বলে দিয়েছেন, ‘বেশ বড় অর্জন।’ আর তামিম বলেছেন, ‘সত্যিই শিহরিত।’ পিএসএলে সুযোগ পেয়ে দারুণ উচ্ছ্বসিত সাকিব। পিএসএলে দল পাওয়ার পরই সেই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পেজে এক পোস্টে লিখেন, ‘করাচী কিংসের হয়ে পিএসএলে (পাকিস্তান সুপার লীগ) খেলা আমার জন্য দারুণ একটা সুযোগ। এ রকম বড় একটা ইভেন্টে বিদেশের মাটিতে দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পাওয়া বেশ বড় অর্জন। আর সেটাও যদি হয় ভালবাসার খেলা ক্রিকেটে, তাহলে তো কথাই নেই।’ তামিম বলেন, ‘পেশোয়ার জালমি আমাকে নেয়ায় তাদের ধন্যবাদ। একই সঙ্গে আমি সত্যিই শিহরিত। তাই এখন চেষ্টা থাকবে ওই দলের হয়ে ভাল পারফর্ম করা। তবে তৃতীয় বিপিএলে যেহেতু আমি ভাল খেলেছি, তাই বিপিএলের ওই ধারাবাহিকতা অবশ্যই ধরে রাখার চেষ্টা করব।’

বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে সবার আগে পিএসএলে দল পেয়েছেন সাকিব। তার পারিশ্রমিকও সবচেয়ে বেশি, ১ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। যা দাঁড়ায় প্রায় ১ কোটি ১০ লাখ টাকায়। বাংলাদেশীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাবেন সাকিবই। টুর্নামেন্টে আইকনের পর ১ লাখ ৪০ হাজার ডলারের ‘প্লাটিনাম’ ক্যাটাগরির অবস্থান। সেই ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ থেকে একমাত্র নাম ছিল সাকিবের। এরপর তামিম ইকবালকে দলে নেয়া হয়। তারপর মুস্তাফিজকে। ৫০ হাজার ডলারের ‘গোল্ড’ ক্যাটাগরিতে তামিম ও মুস্তাফিজ ছিলেন। দুইজনই ৩৯ লাখ টাকা পারিশ্রমিক পাবেন। তবে গোল্ড ক্যাটাগরিতে থাকা আরও তিন বাংলাদেশী ক্রিকেটার মুশফিকুর রহীম, সৌম্য সরকার ও শাহরিয়ার নাফীস সোমবার পর্যন্ত কোন দল পাননি। মঙ্গলবার এসে মুশফিক শুধু দল পেলেন। তাতে করে সাকিব, তামিম, মুস্তাফিজের পর মুশফিকও পিএসএলে খেলার সুযোগ পেলেন।

পিএসএলে ‘খেলোয়াড় ড্রাফটে’র প্রথমদিনে আইকন, প্লাটিনাম, ডায়মন্ড ও গোল্ড ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের দল পাওয়ার লড়াই দেখা যায়। আর তাই সোমবার ২৫ হাজার ডলারের ‘সিলভার’ ক্যাটাগরিতে থাকা মুমিনুল হক, ইমরুল কায়েস, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও এনামুল হক বিজয়দের নামটি আসেনি। যাদের এসেছে তাদের মধ্যে বাজিমাত করেছেন সাকিব, তামিম ও মুস্তাফিজ। কিন্তু মঙ্গলবার সিলভার ক্যাটাগরি সব ফ্র্যাঞ্চাইজির সামনে উন্মুক্ত করা হলেও বাংলাদেশের কোন ক্রিকেটারকে আর দলে ভেড়ায়নি দলগুলো। গোল্ড ক্যাটাগরি থেকে মুশফিককেই নিয়েছে সাকিবের দল। করাচী কিংস, পেশোয়ার জালমি, লাহোর কালান্দার্স, ইসলামাবাদ ইউনাইটেড ও কোয়েট্টা গ্ল্যাডিয়েটর্স-এই ৫ দল অংশ নিচ্ছে পিএসএলে। প্রতি দলে কমপক্ষে ১৬ ক্রিকেটার থাকবেন। ১১ পাকিস্তানী ও ৫ বিদেশী ক্রিকেটার নিতে হবে। সব দলই এ শর্ত পূরণ করে ফেলেছে। এরপর শক্তি বৃদ্ধির জন্য আরও ৪ ক্রিকেটারদের দলে ভেড়াতে পারবে ফ্র্যাঞ্চাইজিরা। সৌম্য ও শাহরিয়ারের ভাগ্য ভাল থাকলে মুমিনুল, ইমরুল, রিয়াদ ও বিজয়েরও ভাগ্য সুপ্রসন্ন হলে সেই শক্তি বৃদ্ধির তালিকায় অবস্থান হলেও হতে পারে। কোন দলে সুযোগ পান কি না, সেই অপেক্ষাতেই এখন থাকতে হচ্ছে দল না পাওয়া বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের। তবে তাদের চুক্তি হবে দ্বিপক্ষীয় আলোচনার ভিত্তিতে। ১৬ জনের স্কোয়াড গড়ে তুলতে একেকটি দল মোট ৯ লাখ ৮৫ হাজার ডলার ব্যয় করতে পারবে। যদি ৪ জন আরও বৃদ্ধি করা হয়, তাহলে ১১ লাখ ডলারের উপরে কোনভাবে একটি দল হতে পারবে না।

বিশ্বের যত বিখ্যাত টি২০ টুর্নামেন্ট আছে, সবকটিতে খেলেছেন সাকিব। বাংলাদেশের বিপিএল, ইন্ডিয়ার আইপিএল, অস্ট্রেলিয়ার বিগব্যাশ, ইংল্যান্ডের ফ্রেন্ডলি টি২০, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিপিএল, শ্রীলঙ্কার এসএলপিএলে খেলেছেন। এবার পিসিএলেও দেখা যাবে সাকিবকে। আর তামিমকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিপিএল, শ্রীলঙ্কার এসএলপিএল, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের ঘরোয়া টি২০তে খেলতে দেখা গেছে। তবে আইপিএলে পুনের দলটিতে থাকলেও খেলা হয়নি তামিমের। এবার পিএসএলেও খেলবেন। আর তাতে শিহরিত এ ওপেনার। সাকিব সব টি২০ লীগেই খেলার অভ্যাস থাকলেও প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠেয় পিএসএলে খেলতে পারবেন বলেই উচ্ছ্বসিত।