২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

কেরলে দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবল লড়াই শুরু


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ভারতের কেরলে আজ থেকে পর্দা উঠছে ‘দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ ফুটবল’ খ্যাত সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের (সাফ সুজুকি কাপ)।’ উদ্বোধনী দিনের একমাত্র ম্যাচে (গ্রুপ ‘এ’) মুখোমুখি হবে নেপাল বনাম শ্রীলঙ্কা। কেরলে ত্রিভানদ্রাম আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায়। একই ভেন্যুতে সন্ধ্যা ৭টায় বুধবার গ্রুপ ‘বি’র খেলায় বাংলাদেশ মোকাবেলা করবে এ আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আফগানিস্তানকে।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর এই টুর্নামেন্টের গ্রুপিং ড্র হয় ভারতের দিল্লীতে। কঠিন গ্রুপেই পড়ে বাংলাদেশ। ‘বি’ গ্রুপে অবস্থান ‘বেঙ্গল টাইগার্স’দের। যেখানে তাদের সঙ্গী গতবারের সাফ চ্যাম্পিয়ন আফগানিস্তান। আরও রয়েছে শক্তিশালী মালদ্বীপ এবং ভুটান। তুলনামূলক ভুটানই বাংলাদেশের কাছে স্বস্তিকর প্রতিপক্ষ। অন্যদিকে ‘এ’ গ্রুপে পড়েছে সর্বোচ্চ ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন ভারত। সঙ্গে আছে নেপাল ও শ্রীলঙ্কা। অপর দল পাকিস্তান টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে। উল্লেখ্য, এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো সাফ ফুটবলের আয়োজন করতে যাচ্ছে ভারত।

বাংলাদেশ দল তাদের আনুষ্ঠানিক অনুশীলন শুরু করে গত ২৮ নবেম্বর থেকে, সাভারের জিরানির বিকেএসপিতে, নতুন কোচ মারুফুল হকের অধীনে। কেরলে ত্রিভানদ্রাম আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টে দুই গ্রুপে মোট আট দল লড়বে। দুই গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল উঠবে সেমিফাইনালে। ৩১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে দুটি সেমিফাইনাল। ৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল। বাংলাদেশের খেলাগুলো হবে ২৪ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় আফগানিস্তান, ২৬ ডিসেম্বর বিকেল ৪টায় মালদ্বীপ এবং ২৮ ডিসেম্বর বিকেল ৪টায় ভুটানের বিপক্ষে।

দক্ষিণ এশিয়ার এই ফুটবল টুর্নামেন্টে আধিপত্য ভারতেরই। ১৯৯৩ সাল থেকে শুরু হওয়া সাফ ফুটবলে তারা সর্বোচ্চ ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন। বাকি চার আসরের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পরেছে চার দল। ২০০৩ সালে প্রথম ও শেষবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ। ১৯৯৯ সালে ফাইনালে খেললেও সেবার শিরোপা জিততে পারেনি বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের একমাত্র শিরোপাটি আসে ২০০৩ সালে মালদ্বীপকে হারিয়ে। এরপর আর শিরোপা জেতা হয়নি। এবার তাই শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশন মামুনুলদের। মিশন শুরুর চারদিন আগেই রবিবার টুর্নামেন্টের ভেন্যু কেরলে পৌঁছায় বাংলাদেশ দল। ২০০৫ সালেও ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। ভারতের কাছে ২-০ গোলে হেরে সেবার শিরোপা জয়ের স্বপ্নপূরণ হয়নি। বাংলাদেশের গ্রুপে থাকা বাকি তিন দলের মধ্যে আফগানিস্তান ও মালদ্বীপের এই শিরোপা জয়ের অভিজ্ঞতা হয়েছে। গত আসরে নেপালকে হারিয়ে ট্রফি নিয়ে ঘরে ফেরে আফগানিস্তান। আর মালদ্বীপ তাদের একমাত্র শিরোপা জিতেছিল ২০০৮ সালে। বাংলাদেশের গ্রুপে তুলনামূলক দুর্বল দল ভুটান। এই প্রতিযোগিতায় দলটির সেরা সাফল্য ২০০৮ সালের সেমিফাইনালে খেলা। এ আসরে ভারত সর্বোচ্চ তিনবার, বাংলাদেশ, মালদ্বীপ ও আফগানিস্তান একবার করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। ২০০৫ সালে রানার্সআপ এবং ২০০৯ সালে সেমিফাইনাল খেলে বাংলাদেশ। গত দুই আসরে গ্রুপ পর্বই পেরুতে পারেনি। তাই এবার কঠিন চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশের জন্য। সম্প্রতি হারের বৃত্তে থাকায় ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়েও অনেক পিছিয়ে যেতে হয়েছে। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অস্ট্রেলিয়া, জর্দান, তাজিকিস্তান, কিরগিজস্তানের মতো শক্ত প্রতিপক্ষদের কাছে টানা হারে বাংলাদেশ। তবে কঠিন প্রতিপক্ষদের বিপক্ষে টানা খেলার মাধ্যমে নিজেদের দুর্বলতা, শক্তি এবং সামর্থ্য সম্পর্কে ধারণা পাওয়া গেছে। এর মধ্যে দুইবার কোচও বদল করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। লোডভিক ডি ক্রুইফ এবং ফ্যাবিও লোপেজের অধীনে খেলেও নৈপুণ্যের উন্নতি ঘটেনি। শেষ পর্যন্ত বিদেশী কোচ না নিয়ে এবার দেশীয় কোচের অধীনেই দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ খ্যাত সাফ ফুটবলে অবতীর্ণ হচ্ছে বাংলাদেশ।

সাফ মিশনে যাওয়ার আগে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ঘরের মাঠে নেপালকে ১-০ গোলে হারিয়ে কিছুটা হলেও আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে পেরেছে বাংলাদেশ।