মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

আফগান নিরাপত্তা বাহিনী-তালেবানের তীব্র লড়াই

প্রকাশিত : ২২ ডিসেম্বর ২০১৫, ০৩:৪৩ পি. এম.

অনলাইন ডেস্ক ॥ আফগানিস্তানের হেলমান্দ প্রদেশের সিনগিন জেলার পুলিশ সদরদপ্তরের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে তালেবান বিদ্রোহীদের সঙ্গে তীব্র লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী।

প্রায় একদিন ধরে তালেবান বিদ্রোহীরা সদরদপ্তরটি ঘিরে রেখেছে বলে কর্মকর্তাদের বরাতে মঙ্গলবার জানিয়েছে বিবিসি।

তবে পুরো সিনগিন জেলাটি কাদের নিয়ন্ত্রণে আছে এ নিয়ে পরস্পর বিরোধী খবর পাওয়ার কথা জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যমটি।

তালেবান জেলাটির নিয়্ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি জানালেও হেলমান্দের গভর্নর ও পুলিশ তাদের দাবি ‘পুরোপুরি মিথ্যা’ বলে নাকচ করেছে।

মঙ্গলবার সকালে শেষ খবর পর্যন্ত পর্যন্ত সানগিন পুলিশ সদরদপ্তরের ভিতরে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা ও সেনারা দপ্তরটির নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছিলেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

জেলার পুলিশ কমান্ডার মোহাম্মদ দাউদ এর আগে বিবিসিকে জানিয়েছিলেন, প্রদেশর অন্যান্য অংশের সঙ্গে সদরদপ্তরের যোগাযোগ তালেবানরা সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে, এতে দপ্তরের ভিতরে খাদ্য ও গুলির সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

গত মাসে সিনগিনে নিরাপত্তা বাহিনীর ৩৬৫ জন সদস্য হতাহত হয়েছেন বলে জানান তিনি।

সিনগিন জেলার ভাগ্য কী ঘটেছে তা নিয়ে হেলমান্দের গভর্নর ও তার ডেপুটি পরস্পর বিরোধী তথ্য দিয়েছেন। তাদের এসব বক্তব্যে ওই জেলার প্রকৃত পরিস্থিতি নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।

গভর্নর মির্জা খান রাহিমি বলেছেন, “আমাদের বাহিনীগুলো সিনগিনে আছে আর সেখানে কিছু সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে, কিন্তু জেলাটি আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে। পাশাপাশি গত রাতে সেখানে আমরা বেশ কিছু অভিযানও চালিয়েছি।”

কিন্তু ডেপুটি গভর্নর মোহাম্মদ জান রাসুলিয়ার জানিয়েছেন, অল্প কয়েকটি সেনা স্থাপনা বাদে পুরো জেলাটি তালেবানের দখলে চলে গেছে।

তালেবান দাবি করেছে, তারা সিনগিন জেলা শহরের অধিকাংশ অংশের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে এবং শহরের প্রধান প্রশাসনিক ভবন পরিত্যাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে।

তালেবান সিনগিনের পাশের জেলা গেরেশ্ক দখল করার পর্যায়ে রয়েছে বলেও অন্যান্য সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে।

প্রকাশিত : ২২ ডিসেম্বর ২০১৫, ০৩:৪৩ পি. এম.

২২/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: