২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হোসেনপুরে ১৫ মেয়র-কাউন্সিলর প্রার্থীকে অর্থদণ্ড


নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ২১ ডিসেম্বর ॥ হোসেনপুর পৌরসভায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে পাঁচ মেয়র ও ১০ কাউন্সিলর প্রার্থীকে অর্থদ- দেয়া হয়েছে। প্রত্যেক মেয়র প্রার্থীকে পাঁচ হাজার টাকা করে ২৫ হাজার টাকা ও ১০ কাউন্সিলর প্রার্থীকে ২১ হাজার টাকাসহ মোট ৪৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যা থেকে রাত অবধি পৌরসভার বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে দেয়ালে দেয়ালে পোস্টার সাঁটানোসহ আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও তরফদার সোহেল রহমান প্রার্থীদের অর্থদ- প্রদান করেন। জরিমানা দ-প্রাপ্ত মেয়ররা হলেন- আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী আব্দুল কাইয়ুম খোকন, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মাহাবুবুর রহমান, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সৈয়দ হোসেন হাছু ও আব্দুল কাদির স্বপন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার আলী মৃধা রতন।

পাথরঘাটায় মেয়র প্রার্থীকে জরিমানা

সংবাদদাতা, পাথরঘাটা, বরগুনা, ২১ ডিসেম্বর ॥ পাথরঘাটা পৌরসভা নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আনোয়ার হোসেন আকনকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। রবিবার সন্ধ্যা ৭টার সময় পাথরঘাটা পৌর শহরের পূর্বমাথা কাঁচাবাজারে নির্বাচনী সভায় মিছিল সহকারে লোক জমায়েত, রঙিন তাবু খাটানো ও ৫টি মাইক ব্যাবহার করার অভিযোগ এনে পাথরঘাটা সহকারী ভূমি কর্মকর্তা ও নির্বাচনের দায়িত্বে নিয়োজিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইকবাল হোসেন এই জরিমানা করেন। পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ শাখাওয়াত হোসেন জানান, আনোয়ার হোসেন আকনকে জরিমানা করার আগেও তার বিরুদ্ধ নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা একাধিকবার লিখিত অভিযোগ করেছেন।

প্রশাসনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝিনাইদহ, ২১ ডিসেম্বর ॥ জেলার শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থীর আচরণবিধি লঙ্ঘন, হামলা ও প্রশাসনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী খলিলুর রহমান সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় ঝিনাইদহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী খলিলুর রহমান লিখিত অভিযোগ করেন, চতুড়া গ্রামে তার নির্বাচনী কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী কাজী আশরাফুল আজমের কর্মীরা রবিবার অস্ত্র-শস্ত্রসহ হামলা চালায়। হামলাকারীরা আমার মোটরসাইকেল ভাংচুর করে এবং আমার কর্মীদের পিটিয়ে আহত করে। এর আগে মাইক ভেঙ্গে দেয়া ও পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়। আমার কর্মী সমর্থক ও ভোটারদের নানাভাবে হুমকি-ধমকি দেয়া হচ্ছে। এসব বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন ও রিটার্নিং অফিসারের কাছে একাধিক অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাওয়া যাচ্ছে না। সংবাদ সম্মেলনে ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি মশিউর রহমান, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক, শৈলকুপা উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি আবদুল ওহাব, সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান খান দিপুসহ শৈলকুপা ও জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।